রাঙামাটি

পাহাড়ে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা আওয়ামী লীগের

জিয়াউল জিয়া

পাহাড়ের আঞ্চলিক দলগুলোর অবৈধ অস্ত্রধারীদের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধ করা না গেলে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ‘নিরপেক্ষতার উদ্দেশ্য’ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হবে এবং সন্ত্রাসীরা আরও উৎসাহী হয়ে আগামী সব নির্বাচনে আগের মতো একই পন্থা প্রয়োগ করবে। এতে ভোটাধিকার বঞ্চিত হবে জনগণ, ব্যহত হবে গণতন্ত্র’- এমন অভিযোগ করেছেন রাঙামাটির সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তৎপরতা, প্রার্থীদের হত্যা, অপহরণের অপচেষ্টা প্রতিহত ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির দাবিতে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

দীপংকর তালুকদার আরও অভিযোগ করে বলেন, শান্তিচুক্তি তোমরা বাস্তবায়ন চাও অ,ার বেছে বেছে শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন পক্ষের লোকজনে হত্যা করে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন সম্ভব না।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার আরও বলেন, চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকেই সন্ত্রাসী তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা আশা করি আসন্ন নির্বাচনকে সুষ্ঠু, অবাধ ও গ্রহনযোগ্য করার জন্য নিরাপত্তা বাহিনীর চলমান অভিযান আরও জোরদার করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে বিগত দু-এক বছর তাদের অপতৎপরতা অনেকটা সংকুচিত হলেও আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে তারা অধিক শক্তিশালী হয়ে আবার আমাদের নেতাকর্মী ও নিরীহ জনগণকে খুন, জখম এর পাশাপাশি প্রাণ নাশের হুমকী, নির্যাতন, ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে আতংক সৃষ্টি করে নির্বাচনে তাদের প্রার্থীদের জেতানোর জন্য বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

ইউপি নির্বাচনের প্রত্যেক ধাপে ভোট কেন্দ্রসহ নির্বাচনী এলাকা সমূহে নিরাপত্তাবাহিনী বিশেষ করে সেনা বাহিনীর অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপনের দাবিও জানার তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাজী কামাল উদ্দিন, জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর প্রমুখ।

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + six =

Back to top button