নীড় পাতা / ব্রেকিং / পাহাড়ের ঘরে ঘরে অতিথি আপ্যায়ন
parbatyachattagram

পাহাড়ের ঘরে ঘরে অতিথি আপ্যায়ন

উৎসবের নগর এখন পার্বত্য জনপদ। ঘরে ঘরে বিরাজ করছে ঐতিহ্যবাহী বৈসাবি উৎসবের আমেজ।  শনিবার ছিল চাকমা জনগোষ্ঠীর বিজু উপলক্ষে ঘরে ঘরে অতিথি আপ্যায়ন। ৩২ রকমের সবজি দিয়ে তৈরি বিশেষ ‘পাজন’ এই দিনে পরিবেশন করা হয়। পাহাড়ি জনগোষ্ঠিরা বিশ্বাস করে এই পাজনে ওষুধি গুণ আছে। কারণ এটি একটি বিশেষ দিনকে উপলক্ষ করে তৈরি করা হয়। তা ছাড়া থাকে নানা রকমের সবজি। এছাড়া যার যার সাধ্য মতো নানা রকমের খাবারের আয়োজন করে চাকমা, মারমা, ত্রিপুরাসহ অন্যান্য ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর মানুষ।

শনিবার উৎসবের মূল দিবসে ঘরে ঘরে চাকমারা মূল বিজু, মারমারা সাংগ্রাইং আক্যা এবং ত্রিপুরারা বৈসুকমা পালন করেছে। ঘরে ঘরে আয়োজন করা হয়েছে নানাবিধ বাহারি খাবারের। আপ্যায়নে মেতেছে শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণীসহ সব বয়সের নারী-পুরুষ। একাট্টা হন আবহমান বাংলার বাঙালিসহ সব জাতিগোষ্ঠীর মানুষ। পাহাড়জুড়ে বইছে খুশির জোয়ার।

রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা(সন্তু লারমা), রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, চাকমা সার্কেল চিফ রাজা ব্যারিস্টার দেবাশীষ রায়, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা নিজ নিজ বাসভবনে সর্বজনীন আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় করেছেন।

আজ চাকমা সম্প্রদায় গজ্জাপজ্জা ও ত্রিপুরা সম্প্রদায় হারি বৈসু উৎসব পালন করবে। এছাড়া মারমা সম্প্রদায়ের আজ থেকে ৩ দিনের উৎসব শুরু হবে। উৎসবের শুরুতে তরুণ তরুণীরা জলকেলি কিংবা পানি খেলায় মিলিত হয়। নতুন বছরে একে অপরের গায়ে মৈত্রী পানি বর্ষণের মাধ্যমে দুঃখ, কষ্ট ও গ্লানি মুছে ফেলার দীপ্ত প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড় চা বাগানের ভোগ দখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ায় শ্রমিক অসন্তোষ

বংশ পরস্পরায় শ্রমিকদের ভোগদখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ার হুমকির মুখে রামগড় চা বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × four =