ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

পাহাড়ধসের ঝুঁকিতে থাকাদের নিরাপদে আশ্রয় নেয়ার আহ্বান ডিসির

আগামী ২৪ ঘন্টায় ভারী বর্ষণের ফলে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের আশঙ্কা রয়েছে। এতে করে যেকোনো ধরণের দুর্ঘটনা এড়াতে পাহাড়ের পাদদেশে ও কাপ্তাই হ্রদের তীরবর্তী স্থানে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরতদের সর্তক থাকা ও আশ্রয়কেন্দ্রে নিরাপদে আশ্রয় নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

রোববার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে এ আহ্বান জানান রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন- ‘এতদ্বারা সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণের ফলে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলায় পাহাড়ধসের আশঙ্কা রয়েছে। এমতাবস্থায়, পাহাড়ের পাদদেশে ও কাপ্তাই লেকের তীরবর্তী স্থানে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত পরিবারসমূহকে সতর্ক থাকার জন্য এবং পার্শ্ববর্তী নিরাপদ স্থানে অথবা আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।’

অন্যদিকে বিকালে রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। মাইকিং এ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসরতদের আশ্রয়কেন্দ্র নিরাপদে আশ্রয় নেওয়ার জন্য জানানো হয়।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের সূত্র মতে, পাহাড়ধসে প্রাণহানি ঠেকাতে এবছর রাঙ্গামাটি শহরের ৩৩টি স্থানকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। ঝুঁকির কথা জেনেও এসব এলাকায় বসবাস করছে অন্তত ৬২৯টি পরিবার।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১৩ জুন রাঙামাটিতে প্রবল বর্ষণের পর পাহাড় ধসের ঘটনায় পাঁচ সেনাসদস্যসহ ১২০ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত হয় আরো দুই শতাধিক মানুষ। এর এক বছর পার না হতেই ২০১৮ সালের ১২ জুন রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় প্রবল বর্ষণে পাহাড়ধসের ঘটনায় মৃত্যু হয় ১১ জনের।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − eight =

Back to top button