নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / খাগড়াছড়ি / পাহাড়জুড়ে অ্যাডভেঞ্চার উৎসব
parbatyachattagram

পাহাড়জুড়ে অ্যাডভেঞ্চার উৎসব

পাহাড়জুড়ে চলছে অ্যাডভেঞ্চার উৎসব। বাছাই করা দেশি-বিদেশি অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমীরা উৎসবে নানা ইভেন্টে চষে বেড়াচ্ছেন পাহাড়ের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত। রোববার তারা খাগড়াছড়িতে অনুষ্ঠিত হয় উৎসবের বেশ কটি ইভেন্ট। তারই অংশ হিসেবে রোববার খাগড়াছড়িতে অ্যাডভেঞ্চার উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সকালে খাগড়াছড়ির রিছাং ঝরনা এলাকায় বিভিন্ন ইভেন্টে দেশ-বিদেশের অ্যাডভেবঞ্চাররা অংশ নেন।

এসময় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি তরুন কান্তি ঘোষ, অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের প্রধান সমন্বয়ক সুবিনয় ভট্টাচার্য, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড টেকসই সামাজিক সেবাদান প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো. মতিউর রহমানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গত শনিবার রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে রাঙামাটি সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

উৎসবের অংশ হিসেবে সোমবার রাঙামাটিতে হাইকিং ও ট্রেইল রান, খাগড়াছড়িতে মাউন্টেইন বাইকিং এবং বান্দরবানে হাইকিং অনুষ্ঠিত হয়। ১৪ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) রাঙামাটিতে সেইলিং বোট ও নৌ বিহার, খাগড়াছড়িতে হাইকিং এবং বান্দরবানে দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন। এবং সর্বশেষ ১৫ জানুয়ারি (বুধবার) রাঙামাটিতে ফুরমোন ট্রেকিংসহ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে এবং বঙ্গবন্ধু অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় আয়োজিত এ উৎসবে দেশ-বিদেশের প্রায় ১০০ জন অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী অংশ নিয়েছেন। তিন পার্বত্য জেলায় মোট ১২টিরও বেশি ইভেন্টে অ্যাডভেঞ্চারা অংশ নেবেন। বুধবার রাঙামাটিতে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের আনুষ্ঠানিক সমাপনী হবে। জানা যায়, ৫ দিনব্যাপী এ অ্যাডভেঞ্চার উৎসবে দেশ-বিদেশের মোট ১শ জন অ্যাডভেঞ্চার অংশ নেবেন। ইভেন্ট পরিচালনার জন্য ১৬ বিদেশি প্রশিক্ষক উৎসবে যোগ দিয়েছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রশিক্ষিত শিক্ষকের অভাবে ব্যাহত হচ্ছে মাতৃভাষায় পাঠদান

২০১৭ সাল থেকে চাকমা, মারমা ও ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর শিশুদের হাতে মাতৃভাষার বই দেয়া হলেও এখনো …

Leave a Reply