রাঙামাটি

‘পাহাড়ে সংঘাতের দায় সন্তু লারমা এড়াতে পারেন না’

লংগদু প্রতিনিধি
‘ক্ষমা করো এবং ভুলে যাও’ এটাই ছিল মহান নেতা এমএন লারমা’র আদর্শ। আজ সেই আদর্শ থেকে শিক্ষা নেওয়ার সময় এসেছে। আমরা যারা এমএন লারমার আদর্শিক রাজনীতি করি তাদেরকে সংগঠিত থাকতে হবে। আজকে কেন এতো বিভেদ কেন দলে উপদলে বিভক্ত জুম্ম জাতির নেতৃত্ব। এর জন্য একমাত্র দায়ী সন্তু লারমা। আজকে পার্বত্য অঞ্চলে যে অরাজকতা, হানাহানি, সংঘাত তার দ্বায়ভার সন্তু লারমা এড়াতে পারেন না। আমরা কখনো বিভেদ চাই না। আমরা চাই ঐক্য। আমরা সন্তু লারমার প্রতি আহব্বান জানাই আসুন বিভেদ ভুলে আমরা এক হয়ে যাই। ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জুম্ম জাতিকে এক করে অধিকার আদায়ের সংগ্রামে শামিল হই।’ এমএন লারমার ৩৮তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় একথা বলেন জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) দলের লংগদু উপজেলা শাখার সভাপতি অনঙ্গ লাল চাকমা।

রাঙামাটির লংগদুতে বৃহস্পতিবার সকালে মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা’র (এমএন লারমা) ৩৮তম মৃত্যু বার্ষিকী ও জুম্ম জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শোক র‌্যালি শ্রদ্ধা নিবেদন ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) দলের অস্থায়ী কার্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন দলটির উপজেলা শাখার সভাপতি অনঙ্গ লাল চাকমা, সাধারণ সম্পাদক শান্তি রঞ্জন চাকমা, লংগদু ইউনিয়ন শাখার সভাপতি সুমন চাকমা, মাইনীমূখ ইউনিয়ন শাখার সহসভাপতি অজিত চাকমা, যুব সমিতির লংগদু থানা শাখার সভাপতি ঝিন্টু চাকমা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের সভাপতি রুপক চাকমা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন লংগদু সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিক্রম চাকমা বলি, আটারকছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অজয় মিত্র চাকমা।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × two =

Back to top button