ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

পানীয় জলের তীব্র সংকটে বরকলের ২৫ গ্রামের বাসিন্দা

রাঙামাটি জেলার দুর্গম বরকল উপজেলার প্রায় ২৫টি গ্রামে বিশুদ্ধ খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। কাপ্তাই লেকের পানি শুকিয়ে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার এবং গত সেপ্টেম্বর থেকে বৃষ্টি না হওয়ার ফলে পাহাড়ি গ্রামগুলো ঝিরি বা ছড়ার পানির ওপর নির্ভরশীলতার ফলে বরকলসহ প্রতিটি উপজেলায় এখন বিশুদ্ধ খাবার পানির তীব্র সংকট তৈরি হয়েছে।

রাঙামাটি জেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের তথ্যানুযায়ী জানা যায়, ‘জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর ২০০৯-২০১২ সাল পর্যন্ত ভূ-গর্ভস্থ পাথরের বেষ্টনী এলাকা শনাক্ত করার জন্য জরিপ করেছে। জরিপের ওপর ভিত্তি করে বিভিন্ন প্রকল্প নেওয়ার জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। প্রকল্পগুলো পাশ হলে এসব এলাকায় বাস্তবায়ন করা হতে পারে।

দুর্গম পাহাড়ি এলাকাগুলো মুলত প্রাকৃতিক ছড়া, ঝিরি ও কুয়ার পানির ওপর নির্ভর করতে হয়। এসব জায়গাগুলোতে পানি শুকিয়ে যাওয়া ফলে খাওয়ার পানির জন্য ঐসব গ্রামবাসীকে দূর দুরন্ত পায়ে হেটে খাবার পানি সংগ্রহ করতে হচ্ছে। অনেক সময় কুয়ার পানি পান করে বিভিন্ন এলাকার মানুষ নানা রোগে ভুগছে। প্রতিবছর পানিবাহিত রোগে প্রাণহানির ঘটনাও ঘটছে। তবে এ ব্যাপারে কোনও উদ্যোগ দেখা যায়নি।

বরকল উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১ নং ও ২ নং ওয়ার্ড দুটিতে প্রায় ৩৭০টি পরিবার বসবাস করে। এসব এলাকার লোকজনের সারা বছরই কাটে বিশুদ্ধ পানির সংকটে। এই গ্রামগুলোর মতো পুরো উপজেলার বিভিন্ন প্রত্যন্ত এলাকায়ও রয়েছে এই পানি সমস্যা।

এবিষয়ে ভূষনছড়া ইউনিয়নের চাইল্যাতলী গ্রামের অংসাচিং মারমা জানান, খুব তাড়াতাড়ি এসব দুর্গম এলাকাগুলোর পানি সমস্যার সমাধান হবে বলে মনে হচ্ছে না। এর আগেও অনেকবার বিশুদ্ধ পানি সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে গিয়েছি কিন্তু আশানুরূপ কোনো ফল আজ পর্যন্ত আমরা পাই নাই।

একই ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মো. আব্দুস ছবুর তালুকদার জানান, আমার ওয়ার্ডের কিছু অংশসহ বরকল চাইল্যাতলী গ্রাম, মারমা পাড়া, বাবু পাড়া, মাষ্টার পাড়া, কলেজ পাড়া, বরকল বাজার এলাকাগুলোর মানুষ বিশুদ্ধ পানির সংকটে ভুগছে। এলাকাগুলো ভু-গর্ভস্থরে পাথর থাকায় সাধারণ নলকুপ বসাতে পারছে না। এলাকাবাসীর আর্থিক অবস্থা ভালো না হওয়ায় সাব-মারসিবল ও ডিপ টিউভওয়েল বসাতে পারছেন না।

বরকল উপজেলার ভুষনছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো মামুনুর রশিদ মামুন জানান, আমার ইউনিয়নের কিছু অংশ ছাড়া বরকল সদও সহ অন্যান্য ইউনিয়নের অনেক স্থানেই পাথরের কারনে কোন সাধারন টিউবওয়েল বসানো সম্ভব নয়। ফলে বিশুদ্ধ পানির সমস্যা এখানে প্রকট। পানি সমস্যা সমাধানের জন্য আমি বিভিন্ন স্থানে ধরনা দিয়েও আজও কোনো স্থায়ী সমাধান পাইনি। কিন্তু কোনও কাজ হয়নি।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button
Close