ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

পানি কমায় খুলে দেয়া হলো ঝুলন্ত সেতু

রাঙামাটি পর্যটনের ঝুলন্ত সেতু বেশ কিছুদিন ডুবন্ত থাকার পর হ্রদের পানি কমায় আবারো পর্যটকদের চলাচলে উপযোগী হয়ে উঠেছে। পর্যটন কর্তৃপক্ষ পর্যটকদের জন্য তুলে দিয়েছে সেতুতে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা।

রাঙামাটির সিম্বল খ্যাত পর্যটনের ঝুলন্ত সেতুটি টানা বর্ষণের ফলে পানিতে ডুবে যায়। সেতু হতে প্রায় তিন থেকে চার ফুট পানি বেড়ে যায়। সেতুটি ডুবে যাওয়ায় দুর্ঘটনা এড়াতে পর্যটন কতৃপক্ষ সেতুতে পর্যটক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ১৯ জুলাই থেকে সেতুতে প্রবেশ নিষিদ্ধ ছিল। পর্যটন প্রবেশ না করার জন্য নোটিশ বোর্ডও টাঙ্গানো হয়েছিল।

সেতু থেকে পানি কমে যাওয়ায় ৪ জুলাই থেকে পর্যটকদের জন্য ঝুলন্ত সেতু আবারো উন্মক্ত করে দিয়ে দিয়েছে পর্যটন কর্তৃপক্ষ। বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সেতুর মুল পাটাতন থেকে এক ফুট নিচে রয়েছে হ্রদের পানি। বেশ কয়েকজন পর্যটকদেরও দেখা গেছে সেতুটিতে।

সেতুটি পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়ায় যেমন পর্যটনের আয় বাড়বে তেমনই পর্যটনের আশেপাশে যারা পর্যটক নির্ভর ব্যবসা করে তারাও লাভাবান হবে। সামনে কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে ব্যাবসায়িরা আশা করছেন ব্যবসায় লাভের।

স্থানীয় পর্যটন রকিব উদ্দিন বলেন, অনেকদিন বন্ধ থাকার পর সেতুতে প্রবেশের বাধা তুলে দেওয়ায় ভালো লাগছে। আমি প্রায় সময় সব এ সেতুতে আসি আমার অনেক ভালো লাগে এখানে আসতে।

ঢাকা থেকে আসা পর্যটক অব্দুল ওয়াব বলেন, আমি এসে শুনেছিলাম পর্যটন সেতুটি ডুবে গেছে এবং ঢুকতে দেওয়া হবে না পর্যটকদের। শুনে মনটা খারাপ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু, এসে দেখি পানি কমে গেছে। পর্যটক প্রবেশ করতে দিচ্ছে দেখে যেতে পারছি। ভালোই লাগছে।

স্থানীয় দোকানদার রহিম বলেন, এতোদিন কোন পর্যটক আসতো না তাই আমাদের ব্যবসাও তেমন হতো এখন থেকে আসাকরি আবার কিছুটা ব্যবসা ভাল হবে।

পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স রাঙামাটির ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ুয়া বলেন, সেতু থেকে পানি কমে যাওয়ায় সেতুটি পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে তবে পর্যটকের সংখ্যা খুবই কম। আশা করি ঈদের ছুটিতে পর্যটকের সংখ্যা বাড়বে।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button