নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / আলোকিত পাহাড় / পর্যটকদের জন্য বোটচালক কামালের ভালোবাসা
parbatyachattagram

পর্যটকদের জন্য বোটচালক কামালের ভালোবাসা

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি.রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদের সুবলং ঝর্নার পাশে একটি বোটে দেখলাম ১০-১২ জনের পর্যটকের একটি দল বোট চালক মোঃ কামাল উদ্দীনের সাথে বিভিন্ন ভঙ্গিতে সেলফি তুলছিল। কৌতুহল বশত বোট চালকের সাথে এভাবে সেলফি তোলার কারণ জানতে চাইলে পর্যটকদের একজন জানান- কামাল ভাই সহজ, সরল ও হাস্যেজ্জ্বল মিশুক প্রকৃতির একজন দক্ষ বোট চালক।

পর্যটকদের সাথে কথা বলে জানা যায়- ঢাকার দুই বন্ধুসহ চট্টগ্রাম থেকে মোট ১২ জন বন্ধু মিলে রাঙামাটি ঘুরতে এসেছেন তারা।
তাদের মধ্যে চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ছাত্র আশরাফুল ইসলাম জানান, প্রতি বছর কোন না কোন বন্ধুদের নিয়ে শীত ও বর্ষা মৌসুমে বোট মালিক ও চালক মোঃ কামাল উদ্দীনের সাথে যোগাযোগ করে তার বোটে করে রাঙামাটির কাপ্তাইলেক সহ বিভিন্ন স্পটে ঘুরে বেড়ান।

ঢাকার নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটির ছাত্র মোঃ মেহেদি হাসান বলেন- এই প্রথম রাঙামাটি বেড়াতে আসলাম। অনেক সুন্দর রাঙামাটির সবকিছুই। এতো সুন্দর পাহাড়, লেক আর নয়ন জুড়ানো সুবলং ঝর্না দেখে সত্যিই আমি অনেক বিমোহিত। আর কামাল ভাইয়ের অসাধারণ ব্যবহার আর আন্তরিকতাই মুগ্ধ আমরা সকলেই।

জীবনে প্রথমবার ঝুলন্ত ব্রিজ আর কাপ্তাই লেকের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য দেখে খুশিতে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন ঢাকা ইউনিভার্সিটির ছাত্র মোঃ রিদুয়ান। প্রতিবার বা প্রতিবছর বোট মালিক ও বোট চালক মোঃ কামাল উদ্দীনের বোটে করে বেড়ানোর কথা জানতে চাইলে চট্টগ্রাম সরকারি কলেজের মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান, বোট মালিক কামাল ভাই প্রথমতো তিনি পর্যটকবান্ধব একজন খুব দক্ষ বোট চালক এবং খুব সতর্কতার সাথে বোট চালনা করেন। কথা অনুযায়ি তিনি প্রত্যেকটা স্পটেও নিয়ে যান এবং ভাড়াটাও নিয়মের মধ্যে রাখেন।

চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ছাত্র মোঃ রিজভি আহমেদ বলেন, কামাল ভাই একজন দক্ষ গাইড এর মতো আমরা ঠিকমতো লাইফ জ্যাকেট পড়েছি কিনা এবং বোটের ছাদের উপরে সতর্কভাবে বসেছি কিনা তা খুব আন্তরিকতার সাথে সবই খেয়াল রাখেন।

প্রায় ২৫ বছর আগে একটি বোট দিয়ে মোঃ কামালউদ্দীন ট্যুরিস্ট ব্যবসা শুরু করেন। তার আন্তরিকতা ও দক্ষ পরিচালনা দিয়ে নতুন করে আরো ৩টি বোট নামিয়ে ট্যুরিস্ট ব্যবসার আরো প্রসার ঘটিয়েছেন।

পর্যটকদের জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা বোট মালিক ও চালক মোঃ কামাল উদ্দীন বলেন- পর্যটকদের আন্তরিকতার কারণে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে রাঙামাটিতে ফ্যামেলি বা কোন গ্রুপ টুরিস্ট এলেই নিরাপত্তা ও ঝামেলাবিহীন নৌ ভ্রমণের জন্য ফোন করে অথবা রিজার্ভ বাজার পাহাড়িকা কাউন্টারের পাশে আমার দোকানে এসে পর্যটকরা প্রথমে আমাকে খুঁজে বের করেন। পর্যটকদের অনেক ভালবাসা পেয়েছি আমি। আমি সব সময় প্রতিটি পর্যটকদের সাধ্যের মধ্যে আমার সবটুকু আন্তরিকতা দিয়েই সতর্কতার সাথে চেষ্টা করেছি সকল পর্যটকদের নৌ ভ্রমণ করিয়ে আনন্দ দিতে। আগামীতেও এই ধারাবাহিকতা রক্ষা করার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ্।

আপনারাও আনন্দদায়ক নৌ-ভ্রমন করতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন মোঃ কামাল উদ্দীনের নিচের এই মোবাইল নাম্বারে।
বোট মালিক ও চালক মোঃ কামাল উদ্দীন- ০১৮২৮৯০৬৫৭২ ও ০১৮২৭২৭৩০২৪।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

অস্ত্রের মুখে রুমায় ৬ গ্রামবাসীকে অপহরণ 

বান্দরবানের রুমায় অস্ত্রের মুখে ৬ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা।  রোববার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে পুলিশ …

Leave a Reply