করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

পথ দেখাচ্ছেন ইউপি সদস্য ফারুক

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে যখন মানুষ গৃহবন্ধি। সাধারণ জীবন যাপন যখন ব্যহত। এমন সময় দরিদ্র মানুষের তিনবেলা খাবার যোগার করাই কষ্টসাধ্য। সরকারি সামান্য ত্রাণ হয়তো সকল দরিদ্র মানুষের চাহিদা পূরণে অক্ষম। এমন সময় মানুষ হয়ে মানুষের পাশে দাড়ানোর বিকল্প নেই। সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানরা যদি দরিদ্র মানুষের পাশে দাড়ায় তবেই এমন দূর্দিনে মানুষ তিনবেলা খেয়ে বাঁচতে পারবে।
এমন দূর্দিনে সাধারণ মানুষের কষ্ট উপলব্ধি করে সহযোগিতার হাত বাড়ালেন তৃণমূলের একজন ক্ষুদ্র জনপ্রতিনিধি। যিনি লংগদু ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য ফারুক আহাম্মেদ। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে নিজ এলাকার দরিদ্র মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে চাল ডাল পৌঁছে দিচ্ছেন। তার এমন মানবিক কাজকে এগিয়ে নিতে যুব রেড ক্রিসেন্ট লংগদু শাখার সদস্যরা যোগ দিয়েছেন। এ স্বেচ্ছাসেবীরা নিজেরা মাথায় করে এলাকা ঘুরে ঘুরে দরিদ্র মানুষের হাতে পৌছে দিচ্ছেন ত্রাণ।
ইউপি সদস্য ফারুক আহাম্মেদ জানান, প্রয়োজনের তুলনায় সরকারি সাহায্য খুবই কম। দরিদ্র মানুষরা সবাই সরকারি ত্রাণ পায় না। আমার এলাকার ১১শ পরিবারের মধ্যে আমি সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত অর্থে ৪শ পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, পিয়াজ ও আলু পৌঁছে দিচ্ছি। এছাড়াও যাদের মাস্ক নাই তাদেরকে মাস্ক দিচ্ছি। ইতোমধ্যে ঝর্ণাটিলা, ভাইট্টাপাড়া এলাকায় ২শ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছি। আগামী দু একদিনে মধ্যে বাকি দুইশ পরিবারের মাঝে ত্রাণ পৌঁছে দেয়া হবে। আমার এ কাজে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে রেডক্রিসেন্ট এর সদস্যরাও যোগ দিয়েছে। তারা মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিতে সাহায্য করছে।
যুব রেডক্রিসেন্ট লংগদু শাখার যুব প্রধান জাহাঙ্গীর আলম অপু জানান, একজন জনপ্রতিনিধি একাই চারশ পরিবারের দায়িত্ব নিয়েছেন এমন মানবিক কাজে আমরাও হাত মিলিয়েছি। আমাদের ইউনিটের সদস্যরা ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করেছি। আমরা স্বেচ্চাসেবীরা মুলত মানুষের কল্যাণেই কাজ করছি।
তৃণমূলের একজন জনপ্রতিনিধির এমন মানবিক কাজকে দেখে সমাজের বৃত্তবান এবং জনপ্রতিনিধিদের স্ব স্ব অবস্থান থেকে এগিয়ে আসা প্রয়োজন বলে মনে করেন লংগদু উপজেলার সাধারণ মানুষ। মানুষের চরম দূর্দিণে মানুষের এগিয়ে আসার বিকল্প নাই।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button
Close