খাগড়াছড়িব্রেকিংলিড

নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে ইউপিডিএফ’র গুলি বিনিময়

খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলার লেমুছড়িতে সোমবার ভোর রাতে নিরাপত্তাবাহিনী ও ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীদের মধ্যে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে । এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা আমেরিকান একটি অত্যাধুনিক কোল্ট রাইফেল, ফ্রান্সের তৈরি একটি পিস্তল ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ বিপুল সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। তবে এ সময় কোন হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি । তাছাড়া সন্ত্রাসীদেরকেও আটক করা সম্ভব হয়নি ।

নিরাপত্তাবাহিনীর সূত্রে জানা যায, সন্ত্রাসীদের একটি দল উপজেলার লেমুছড়ি এলাকায় অবস্থান করছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার ভোর রাতে দিকে মহালছড়ি জোনের মেজর সালেহ বিন শফি’র নেতৃত্বে নিরাপত্তাবাহিনীর একটি দল অভিযান চালায়। নিরাপত্তাবাহিনীর দলটি সন্ত্রাসীদের আস্তানার কাছাকাছি পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। এ সময় নিরাপত্তাবাহিনীও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে।

খাগড়াছড়ি রিজিয়নের ষ্টাফ অফিসার মেজর মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সন্ত্রাসীদের গুলির জবাবে নিরাপত্তাবাহিনী ২৬ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৬ রাউন্ড গুলিসহ আমেরিকান তৈরী একটি অত্যাধুনিক কোল্ট রাইফেল, কোল্ট রাইফেলের একটি ম্যাগজিন, ৪ রাউন্ড গুলিসহ ফ্রান্সের তৈরী একটি পিস্তল, একটি পিস্তলের ম্যাগজিন ও বিপুল পরিমাণ সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার হয়।

এলাকায় চাঁদাবাজি ও আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে ইউপিডিএফ এর এ দলটি লেমুছড়ি এলাকায় অবস্থান করছিলো বলেও নিশ্চিত করে নিরাপত্তাবাহিনী।

ইউপিডিএফ এর অস্বীকার
এদিকে খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলাধীন লেমুছড়িতে সেনাবাহিনী ও ইউপিডিএফ-এর মধ্যে “বন্দুক যুদ্ধ এবং অস্ত্র উদ্ধার” সংক্রান্ত খবর বিভিন্ন অনলাইন ও ইলেক্টনিক্স মিডিয়ায় সেনাবাহিনীকে উদ্ধৃতি দিয়ে প্রচারিত হয়েছে, যা নির্জলা মিথ্যা, বানোয়াট, সাজানো ও কল্পনাপ্রসূত বলে দাবি করেছে  ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)।

সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে ইউপিডিএফ-এর খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের প্রধান সংগঠক সচিব চাকমা বলেন, মহালছড়ির লেমুছড়িতে আজ সোমবার ভোররাতে ইউপিডিএফ-এর সাথে সেনাবাহিনীর কথিত বন্দুক যুদ্ধ ও অস্ত্র উদ্ধারের খবরটি পাগলের প্রলাপ ছাড়া কিছুই নয়। এ ধরনের কোন ঘটনাই সেখানে ঘটেনি।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়,“বন্দুক যুদ্ধ ও অস্ত্র উদ্ধার” নামের এসব নাটক ইউপিডিএফ-এর বিরুদ্ধে বিগত দেড়যুগ ধরে চলে আসা শাসকগোষ্ঠীর ষড়যন্ত্রেরই ধারাবাহিক অংশ। তিনি সত্য-মিথ্যা যাচাই না করে এ ধরনের মিথ্যা ও বানোয়াট খবরের পিছনে দৌঁড় না দিতে সকল মিডিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

ি কমেন্ট

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: