ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

নিজস্ব অ্যাম্বুলেন্স যুগে রাঙামাটি পৌরসভা

দীর্ঘদিন ধরে রাঙামাটিবাসী অ্যাম্বুলেন্স’র অভাবে সঠিক সময়ে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পরে পৌর মেয়রের দেওয়া প্রতিশ্রুতি মোতাবেক পৌরসভার উদ্যোগে নতুন অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের উদ্বোধন করা হয়েছে। এই প্রথমবারের মতো পৌরসভাটির স্বাস্থ্যসেবার যুক্ত হলো অ্যাম্বুলেন্স।

বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি পৌরসভা মিলনায়তনে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস উদ্বোধন করেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার। বিএসআরএম গ্রুপ ও অগ্রযাত্রার সহযোগিতায় রাঙামাটিতে এই অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস চালু করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র মো: আকবর হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএসআরএম গ্রুপ অব কোম্পানির হেড অব সিএসআরপিআর এন্ড কমিউনিকেশন রুহি এম আহমেদ, অগ্রযাত্রার চেয়ারম্যান নিলিমা আক্তার, সাবেক সিভিল সার্জন ডা. সুপ্রিয় বড়–য়া, প্যানেল মেয়র জামাল উদ্দিন, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক।

রাঙামাটি পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার কালায়ন চাকমার সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার মিজানুর রহমান বাবু।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার বলেন, রাঙামাটিবাসীর দীর্ঘদিনের ভোগান্তি ছিলো এই অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস। পাহাড় ধস দুর্ঘটনায়ও এই অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের জন্য দুর্ভোগে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। বর্তমান পৌর মেয়র তাঁর একান্ত প্রচেষ্টার মাধ্যমে নিজ উদ্যোগে বিএসআরএম গ্রুপ ও অগ্রযাত্রার সহযোগিতায় এই সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেছেন। তিনি রাঙামাটিবাসীকে একটি নতুন অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিতে সক্ষম হয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে খুবই আন্তরিক। সরকারের একান্ত চেষ্টার ফলে রাঙামাটিতে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির চিকিৎসা সেবা উন্নত করার লক্ষ্যে এখানে মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হয়েছে। মেডিকেল কলেজ পূর্ণ বাস্তবায়ন হলে রাঙামাটিবাসীর চিকিৎসা সেবার উন্নতি হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে পৌরসভার মেয়র মো: আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, আমার নির্বাচনের প্রতিশ্রুতির মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা। রাঙামাটিতে বর্তমানে ভালো কোন অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস নেই। ফলে রোগিকে হাসপাতালে নিয়ে আসাসহ চট্টগ্রামে নেওয়ার ক্ষেত্রে ভোগান্তি পোহাতে হয় পৌরবাসীকে। সে কথা চিন্তা করে আমি এই অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস চালু করার উদ্যোগ নিয়েছিলাম।
তিনি আরো বলেন, এই অ্যাম্বুলেন্স ব্যবসার জন্য পরিচালিত হবে না। এটির কাজ হচ্ছে পৌরবাসীকে সেবা দেওয়া। শুধু মাত্র অ্যাম্বুলেন্সের রক্ষণাবেক্ষণ’র জন্য একটি স্বল্প মানের ফি নেওয়া হবে।

আলোচনা সভার পরে বিএসআরএম গ্রুপ অব কোম্পানির হেড অব সিএসআরপিআর এন্ড কমিউনিকেশন রুহি এম আহমেদ রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র মো: আকবর হোসেন চৌধুরীর হাতে অ্যাম্বুলেন্সের চাবি হস্তান্তর করেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

১টি কমেন্ট

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: