বান্দরবান

নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে মাইন উদ্ধার

বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তের ৪৫-৪৬ নম্বর পিলারের মাঝামাঝি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার জামছড়ি থেকে মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সন্ধ্যায় দুটি ভূমি (আইইডি) মাইন উদ্ধার করেছে আবুল কালাম নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা।
সীমান্তে চলাচলরত মাানুষের পায়ের চাপ পড়লেই মাটিতে কৌশলে পুঁতে রাখা মাইন বিস্ফোরিত হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় মানুষ। ভাগ্যক্রমে কেউ বেচে গেলেও হাত বা পা বিচ্ছিন্নসহ শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়ে পড়ে। এই ধরনের মাইনে বিষ্ফোরিত হয়ে প্রায় সময় বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে মানুষের প্রাণহানি-হতাহতের ঘটনা ঘটে।
মাইন দুটি উদ্ধার করা স্থানীয় বাসিন্দা আবুল কালাম জানান- মিয়ানমার সীমান্তের কাটা তার থেকে প্রায় ৫শ গজ বাংলাদেশ অভ্যান্তরে এই দুটি মাইন পুতে রেখেছিল মিয়ানমার বাহিনী। মাইন দুটি তিনি অত্যন্ত কৌশলে সরিয়ে পাখির খাঁচার মধ্যে রেখে বাড়ীর একটি কাঠাল গাছে লঠকিয়ে রেখেছেন।
এদিকে সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আবছার জানান, বিজিবির মাধ্যমে খবর পেয়ে থানার এসআই নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে তিনি ঘটনাস্থল জামছড়ি যান। পরে উদ্ধার হওয়া মাইন দুটি নিরাপদ স্থানে পাহারায় রেখেছে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী এবং গ্রাম পুলিশ সদস্যরা। এই বিষয়ে বান্দরবান থেকে বোমা বিশেষজ্ঞ দল ঘটনাস্থলে যাওয়ার কথা রয়েছে বলে জানান এই জনপ্রতিনিধি।
রোহিঙ্গা নাগরিকরা যাতে মিয়ানমারে যেতে না পারে সেজন্য মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী এসব মাইন মাটিতে পুতে রেখেছিল বলে ধারনা করছেন।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button