রাঙামাটি

নতুন প্রেসক্লাব থেকে আরো ৬ সাংবাদিকের পদত্যাগ

‘গঠনতান্ত্রিক নিয়মের ব্যত্যয়’ ও ‘একনায়কতান্ত্রিকতা’র অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
৩৮ সদস্য নিয়ে সাত মাস আগে যাত্রা শুরু করা ‘রাঙামাটি প্রেসক্লাব’ থেকে আরো ৬ জন সদস্য পদত্যাগ করেছেন। এর আগে পৃথক পৃথকভাবে আরো ১১ জন সদস্য সংগঠনটি থেকে পদত্যাগ ও অব্যাহতি নিয়েছিলেন।
রবিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে পদত্যাগকারি সাংবাদিকরা হলেন-তৌসিফ মান্নান,সৈকত রঞ্জন চৌধুরী, জিয়াউল হক,মিশু দে,সাইফুল হাসান এবং প্রান্ত রনি।

নতুন প্রেসক্লাবের সভাপতি-সম্পাদক বরাবরে পাঠানো এক পদত্যাগপত্রে তারা বলেন, ‘গত ৩০ জানুয়ারি আপনাদের (সুশীল প্রসাদ চাকমা-নন্দন দেবনাথ) নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সদস্যপদ গ্রহণ করি। কিন্তু অতীব দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, বিগত সময়ে পরিলক্ষিত হয় যে, রাঙামাটি প্রেসক্লাবে গঠনতান্ত্রিক নিয়ম ব্যত্যয় করে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে এবং যা একনায়কতান্ত্রিক সংগঠনে রূপ নিয়েছে। এভাবে একটি পেশাজীবী সংগঠন পরিচালিত হওয়া কখনোই কাম্য নয়।’

পদত্যাগপত্রে আরো বলা হয়-‘ রাঙামাটির সংবাদকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ও মানোন্নয়নের উদ্দেশ্য নিয়ে এই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং সকলে একত্রিত থাকার প্রত্যয়ে অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করেছিলো। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে খোদ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ বেশ কয়েকজন সদস্য সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত না মেনে বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে আসছে এবং তার যথাযথ ব্যাখ্যা না পাওয়ায় সাংগঠনিক অপরিপক্কতার দৃষ্টান্ত প্রতিয়মান হয়েছে। এহেন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণপূর্বক আমরা মনে করছি, গঠনতন্ত্রের নিয়মনীতি ব্যতয় করে পরিচালিত কোন অগণতান্ত্রিক সংগঠনের পদে আসীন থাকা আমাদের নীতি-আর্দশের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।’

পদত্যাগকারি ছয় সংবাদকর্মী আরো লিখেছেন-‘ উপরিউক্ত বিষয়গুলোর কারণে আমরা সংগঠনের সাংগঠনিক সকল পদ থেকে স্ব-জ্ঞানে ও সুস্থ মস্তিকে পদত্যাগ করছি। একইসঙ্গে রাঙামাটির সকল পেশাদার সংবাদকর্মীদের সার্বিক মঙ্গলকামনা ও ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, পদত্যাগ করা ছয়জন সাংবাদিক রাঙামাটি সাংবাদিক সমিতির সদস্য। মাস সাতেক আগে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের বাইরে থাকা সবগুলো সংগঠনের সাংবাদিকরা মিলিত হয়েছে যখন নতুন ‘রাঙামাটি প্রেসক্লাব’ গঠন করে,তখন এরাও তাদের সাথে যোগ দিয়েছিলেন। এই ৬ জন পদত্যাগ করার আগে ৮ জন সদস্য এই প্রেসক্লাবের বিরুদ্ধে নানান ‘স্বেচ্ছাচারি ও অসাংগঠনিক’ সিদ্ধান্তের অভিযোগ এনে একযোগে পদত্যাগ করেছিলেন। এরপর পৃথক পৃথকভাবে আরো তিন সংবাদকর্মী অব্যাহতি নেন। এনিয়ে সংগঠনটি ছাড়ল ১৭ জন সদস্য।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button