রাঙামাটি

দুর্গম শান্তিনগরে জ্বললো শিক্ষার আলো

ওমর ফারুক মুছা, লংগদু ॥
লংগদুর দুর্গম ও পাহাড়ি অধ্যুষিত গ্রামের নাম ‘শান্তিনগর’। দুর্গমতার কারণে শুধু শান্তিনগর গ্রামই নয়; এর আশপাশের আরো পাঁচটি পাহাড়ি পাড়ায় কোন বিদ্যালয় না থাকায় দীর্ঘদিন যাবত মৌলিক শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল এলাকার কোমলমতি শিশুরা। রাঙামাটির লংগদু উপজেলার গুলশাখালী ইউনিয়নের সেই দুর্গম ‘শান্তিনগর’ গ্রামে অবশেষে জ¦ললো শিক্ষার আলো। এই গ্রামে নির্মাণ করা হচ্ছে প্রাথমিক বিদ্যালয়।

গত সোমবার শান্তিনগর গ্রামে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাইনুল আবেদীন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য মো: আব্দুর রহিম, লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুল আমিন, গুলশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু নাছির, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাকসুদুর রহমান, উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মনিরুজ্জামান।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় হেডম্যান, কার্বারি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন শান্তিনগর গ্রাম প্রধান নবীন কার্বারি।

বক্তারা বলেন, শান্তিনগর গ্রামটি যেমনি দুর্গম তেমনি দরিদ্র পাহাড়ি জনসাধারণের বসবাস। এখানে এতদিন কোন প্রাথমিক বিদ্যালয় গড়ে না উঠায় এতদিন কোমলমতি ছেলে মেয়েদের অনেক দূর গ্রামে গিয়ে স্কুলে ভর্তি হতে হতো। যা সকলের পক্ষে সম্ভব হতো না। তাই এই কষ্ট লাঘবের জন্য এবং শিশুদের শিক্ষার পরিবেশ গড়ে তোলার জন্য রাঙামাটি জেলা পরিষদের উদ্যোগে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় তৈরি করা হবে। এখন থেকে নিজ গ্রামেই শিশুরা স্কুলে যেতে পারবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button