খাগড়াছড়িব্রেকিংলিড

দীঘিনালায় ‘পাড়াবন’ রক্ষায় ৮৩ লাখ টাকা বিতরণ

দীঘিনালায় ‘পাড়াবন’ রক্ষায় পাড়াবনের আওতাভূক্ত পরিবার সমূহের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। জেলা পরিষদের মাধ্যমে ১হাজার ১৯৭ পরিবারের মধ্যে প্রতি পরিবারকে ৭হাজার টাকা করে মোট ৮৩ লাখ ৭৯হাজার টাকা বিতরণ করেছে আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউএনডিপি।

রবিবার উপজেলার বাবুছড়া আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে সুবিধাভোগীদের মাঝে এ টাকা বিতরণ করা হয়। খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শরনার্থী বিষয়ক টাষ্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্রলাল ত্রিপুরা এমপি। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ সদস্য এ্যাড. আশুতোষ চাকমা, শতরুপা চাকমা, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা টিটন খীসা, বাবুছড়া ইউপি চেয়ারম্যান সন্তোষ জীবন চাকমা, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জ্যোতির্ময় চাকমা এবং ধনপাতা মৌজা প্রধান যুবলক্ষন চাকমা। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউএনডিপি’র জেলা ব্যাবস্থাপক প্রিয়তর চাকমা।

টাকা বিতরণের উদ্দেশ্য সম্পর্কে বক্তারা বলেন, প্রকৃতি রক্ষায় পাড়ার বন রক্ষা অপরিহার্য। বনের আওতাভূক্ত দরিদ্র পরিবারের লোকজন যেন বন থেকে ছন, বাঁশ, লাকড়ি সংগ্রহ না করেন এবং ছড়া থেকে কাঁকড়া সংগ্রহ না করেন সেজন্য তাদের অনুদান হিসেবে আর্থীক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এ টাকা নষ্ট না করে আয় বর্ধমান কিছু করারও পরামর্শ দেওয়া হয় অনুদান প্রাপ্তদের।

সংশিষ্ট সূত্রমতে, উপজেলার কবাখালি ও বাবুছড়া এ দুই ইউনিয়নের ৬টি ভিসিএফ (ভিলেজ কমিউনিটি ফরেষ্ট) এর আওতাধীন ১৬টি পাড়ার তালিকাভূক্ত এসব পরিবারের মাঝে টাকা বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে কবাখালি ইউনিয়নে ৮৪৪ পরিবার এবং বাবুছড়া ইউনিয়নে ৩৫৩ পরিবার এ সুবিধা পেয়েছেন।

টাকা আনতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে এক নারী নিহতঃ বাবুছড়া আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টাকা আনতে গিয়েছিলেন উপজেলার কবাখালি ইউনিয়নের শান্তিপুর এলাকার কমলেন্দু চাকমার স্ত্রী রুপা চাকমা (৩৫)। বিতরণ অনুষ্ঠান মঞ্চে যখন অতিথিদের বক্তব্য চলছিল তখন রুপা বিদ্যালয়ের বাহিরে পাকা সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এক সময় পাশে থাকা ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সায় বিশ্রাম নিতে বসেন। তখন রিক্সার ব্যাটারি চার্জের জন্য সেটিতে বিদ্যুত সংযোগ লাগানো ছিল। সে সংযোগে সমস্যা হয়ে পুরো অটো রিক্সা বিদ্যুতায়িত হলে বিদ্যুতপৃষ্ট হন রুপা চাকমা। দ্রুত তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

সেসময় দায়িত্বপালনরত উপসহকারী চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. রাশেদুল আলম জানান, হাসপাতালে পৌছানোর আগেই ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button