বান্দরবানব্রেকিং

ঝগড়া থামাতে গিয়ে নিজেই প্রাণ হারালেন আক্তার হোসেন !

বান্দরবানের লামা উপজেলা ঝগড়া থামাতে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে আক্তার হোসেন (৫৩) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সরই ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি আমির হামজা পাড়াস্থ সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলীর রাবার বাগানে। আক্তার হোসেন চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলার শিলকুট ইউনিয়নের চরইত্যা পাড়ার বাসিন্দা মৃত আলী চানের ছেলে।

সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে আক্তার হোসেন সপরিবারে সরই ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলীর রাবার বাগানের কেয়ারটেকার হিসেবে থাকতেন। রবিবার দিনগত রাত ১০টার দিকে আক্তার হোসেনের মেয়ের স্বামী জিয়াউল হকের সাথে বাগানে কর্মরত বাদশা নামের আরেক ব্যক্তির সাথে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে আক্তার হোসেন ঝগড়া মীমাংসার চেষ্টা করলে বাদশা উত্তেজিত হয়ে জিয়াউল হক ও আক্তার হোসেনকে গালমন্দসহ কিল ঘুষি মারেন। এতে আক্তার হোসেন হঠাৎ মাটিতে লুড়ে পড়লে স্বজনেরা দ্রæত উদ্ধার করে কাছাকাছি পদুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক আক্তার হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পর অভিযুক্ত কেয়ারটেকার বাদশা পালিয়ে যায়।

তবে স্থানীয়দের ধারণা, আক্তার হোসেন একজন অসম্ভব রাগি মানুষ ছিলেন। সম্ভবত ঝগড়ার সময় বাদশা গাল মন্দ করায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।

এদিকে মৃত আক্তার হোসেনের মেয়ে মোর্শেদা বেগম পুলিশকে জানান, ঝগড়ার সময় বাদশা গালমন্দ ও ঘুষি মারলে আমার বাবা হঠাৎ মাটিতে লুটে পড়েন। পরে দ্রæত উদ্ধার করে কাছাকাছি পদুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে স্থানীয় ক্যায়াজুপাড়া পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ মো. শফিউল আলম বলেন, মৃত আক্তার হোসেনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে লাশের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button