ব্রেকিংরাঙামাটি

জুলাই মাসের বরাদ্দও পেলো কাপ্তাই হ্রদের জেলেরা

এর আগে মে ও ‍জুন মাসের বরাদ্দ পেয়েছিলেন তারা

কাপ্তাই হ্রদে মাছধরা বন্ধকালীন মৎস্যজীবীদের জন্য আরও ৪৩৯ দশমিক ১২ মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। কাপ্তাই হ্রদের তীরবর্তী রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ১০টি উপজেলায় মাছধরা থেকে বিরত থাকা ২১ হাজার ৯ শত ৫৬টি জেলে পরিবারকে জুলাই মাসের জন্য ২০ কেজি হারে এ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসকদের আওতায় এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।

এর আগে মে এবং জুন মাসের বরাদ্দ পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু জুলাই মাস পৃথক অর্থবছরে পড়ায় সেই বরাদ্দ তখন পাননি জেলেরা। রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ জুলাই মাসের বরাদ্দ চেয়ে সেই সময়েই আবেদন করেছিলেন বলে জানিয়েছিলেন গণমাধ্যমকে।

মঙ্গলবার এই আদেশে, ভিজিএফ চাল ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখের মধ্যে উত্তোলন ও সংশ্লিষ্টদের মাঝে বিতরণ সম্পন্ন করার জন্য জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কার্ডধারী জেলে ছাড়া অন্য কাউকে এ ভিজিএফ দেওয়া যাবে না বলেও আদেশে উলে­খ করা হয়েছে।

এর আগে ২০১৯-২০ অর্থবছরের মে মাসে উলি­খিত ১০টি উপজেলায় মে-জুন দুই মাসের জন্য ২২ হাজার ২ শত ৪৯টি মৎস্যজীবী পরিবারকে প্রতি মাসে ২০ কেজি হারে ৮৮৯ দশমিক ৯৬ মেট্রিক টন ভিজিএফ সহায়তা দেয় সরকার।

চাল বরাদ্দ পাওয়া উপজেলাগুলো হলো- রাঙামাটি জেলার সদর, লংগদু, বাঘাইছড়ি, নানিয়ারচর, কাপ্তাই, বিলাইছড়ি, জুরাছড়ি, বরকল এবং খাগড়াছড়ির মহালছড়ি ও দিঘীনালা।

প্রসঙ্গত, প্রতিবছর মে থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত কাপ্তাই হ্রদে সবধরনের মাছধরা নিষিদ্ধ থাকে। এ সময়ে হ্রদের জলে কার্প জাতীয় মাছের পোনা ছাড়ে হ্রদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ মৎস উন্নয়ন কর্পোরেশন(বিএফডিসি)।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button