রাঙামাটিলিড

চিৎমরমে ইউপিতে ভোটগ্রহণ ১১ নভেম্বরের পরিবর্তে ২৮ নভেম্বর

ভয়, শঙ্কা আর উৎসবে কাপ্তাইয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন প্রার্থীরা

কাপ্তাই প্রতিনিধি ॥
ভয়, শঙ্কা আর উৎসবের মধ্য দিয়ে রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য পদে প্রার্থীরা তাদের স্ব- স্ব নেতাকর্মী সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন। রবিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র জমা দেবার শেষ সময় ছিল। এদিন সকাল হতে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার অফিস এবং এর আশেপাশে প্রার্থী সমর্থকদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

তবে রবিবার বিকেল ৪.৪৫ মিনিটে নির্বাচন কমিশন হতে এক ফ্যাক্স বার্তায় কাপ্তাইয়ের ৩নং চিৎমরম ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ১১ নভেম্বর স্থগিত রাখা হয় বলে জানান উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তানিয়া আক্তার। আওয়ামী লীগের মনোনয়নধারী এক প্রার্থী নিহত হওয়ায় তৃতীয় ধাপে আগামী ২৮ নভেম্বর এই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হবে বলে তিনি জানান।

এদিকে মনোনয়ন পত্র জমা করতে আসা নাম প্রকাশ না করার সত্ত্বে একাধিক আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থী এই প্রতিবেদককে জানান, গত শনিবার রাতে চিৎমরম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের মনোনয়নধারী প্রার্থী নেথোয়াই মারমা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে খুন হবার পর এখন আমাদের মধ্যে অজানা আতঙ্ক ভর করছে। বিশেষ করে চিৎমরম, রাইখালী এবং ওয়াগ্গা ইউনিয়ন পরিষদের প্রার্থীরা আগামী ১১ নভেম্বর নির্বাচনের পূর্বে এলাকায় কি ঘটবে তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন। তাঁরা সকলেই নির্বাচনের আগে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে নির্বাচনি সুষ্ঠু পরিবেশ আনার জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানান।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তানিয়া আক্তার জানান, রবিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত ২নং রাইখালী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ইউপি সদস্য পদে ২৭ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৯ জন ৪ নং কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২ জন, সদস্য পদে ২৬ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৭ জন, ৫ নং ওয়াগ্গা ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ২ জন, সদস্য পদে ২০ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৮ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করার শেষ সময় ২৬ অক্টোবর এবং যাচাই বাচাই ২৭ অক্টোবর।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button