আলোকিত পাহাড়ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

চট্টগ্রাম অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ রেঞ্জার হলো রাঙামাটির ‘রেশমী’

রাঙামাটির মেয়ে ফাতেমা তুজ জোহরা রেশমী চট্টগ্রাম বিভাগে শ্রেষ্ঠ রেঞ্জার হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছেন। সে জেলা শহরের ১নং পাথর ঘাটা রিজার্ভ বাজার এলাকার মো: হোসেন’র মেয়ে।
গত শুক্রবার (২৬ অক্টোবর) বাংলাদেশ গার্ল গাইডস্ এসোসিয়েশন’র আয়োজনে ঢাকায় গাইড অডিটোরিয়ামে শীল্ড ও অ্যাওয়াড অনুষ্ঠানে তিনি এ স্বীকৃতি ব্যাচ গ্রহণ করেন। এসময় তাকে স্বীকৃতি ব্যাচ পরিয়ে দেন বাংলাদেশ গার্লস গাইডস্ এসোসিয়েশন’র জাতীয় কমিশনার সৈয়দা রেহানা ইমাম ও ডেপুটি জাতীয় কমিশনার (প্রোগ্রাম) ও শীল্ড ও আ্যাওয়াড সাব কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. ইয়াসমিন আহমেদ।

সারা দেশের ১১জন গার্লস গাইডস্ এ স্বীকৃতি লাভ করেন। তার মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগের থেকে রাঙামাটির মেয়ে রেশমী এ স্বীকৃতি লাভ করেছেন। তিনি শৈলমুক্ত রেঞ্জার ইউনিট’র ইউনিট লিডার এবং রাঙামাটির অন্যতম সামাজিক সংগঠন ‘প্রিয় রাঙামাটি’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। সে বর্তমানে রাঙামাটি সরকারি কলেজের বিএ তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী।
রাঙামাটিতে এর আগে ১৯৯২ সালে বাংলাদেশ গার্লস গাইডস্’র ‘স্টার অব বাংলাদেশ’ স্বীকৃতি লাভ করেন নিরূপা দেওয়ান। বহু বছর পরে শ্রেষ্ঠ রেঞ্জার স্বীকৃতি রাঙামাটির জন্যে বয়ে আনেন ফাতেমা তুজ জোহরা রেশমী।

ফাতেমা তুজ জোহরা রেশমী বলেন, আমি কখনো কল্পনা করতে পারিনি এমন সম্মাননা আমি পাবো। এ সম্মাননাকে আমি কাজে লাগিয়ে রাঙামাটির জন্য কিছু করতে চাই। রাঙামাটি কলেজে গাল গাইডস্’র কমিটি গঠনসহ জেলার প্রতিটি স্কুলে ঝিমিয়ে পড়া প্রতিটি গার্লস গাইডস্ টিমকে আবারো এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

তিনি আরো বলেন, এ দেশের জন্যে এবং আমি যে অঞ্চলে বাস করি এ অঞ্চলের মানুষের জন্যে অনেক কিছু করার স্বপ্ন আমি দেখি। সকলের সহযোগিতা পেলে আমি আমরা এ স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে পারবো বলে আশা রাখি। গার্লস গাইডস্’র আন্দোলন এগিয়ে নিতে সকলের সহযোগিতা আশা করেন রেশমী।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button