নীড় পাতা / ফিচার / অরণ্যসুন্দরী / গৃহবধূ পুতুলের ‘ফুরোমন’ জয়
parbatyachattagram

গৃহবধূ পুতুলের ‘ফুরোমন’ জয়

সন্তানদের লালন পালন করা আর স্কুলে নিয়ে যাওয়া নিয়ে আসা সকল কাজই করতে হয় নিয়ম মাফিক। নিঁখুত হাতে সামলাতে হয় স্বামী-সংসার। ঘরের কোনও কাজই যেন ফেলে রাখা যাবে না। এক গৃহবধূ সংসার জীবনের ছন্দ-ছলে এমনই করে। সংসারের ছন্দেই জীবনের স্বাদ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ও বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ক্লাবের আয়োজনে ফুরোমন ট্র্যাকিং এক্সপিডিশন; যাতে অংশ নেয় তিন পার্বত্য জেলার ২১জন আর বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আরও ১২জনসহ মোট ৩৩ জন।

আয়োজনের মুল অংশগ্রহণের বাহিরে এক নতুন মুখ। চলছে সকল অংশগ্রহণের সাথে তাল মিলিয়ে হাঁটা। জয় করতে চলছে সবার মতো ফুরমোন। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ১৫০২ ফুট উচ্চতা পারবে কী মেয়েটা? হাঁটতে হবে উঁচু-নিঁচু পথ, পাহাড় সিঁড়ি সবই। সাবলীল হাঁটা ক্লান্তিহীন চলছে হাতে ছোট বাঁশ হাতে নিয়ে। ঘরের বধূ বাহির হয়েই ‘ফুরোমন’ জয় করবে কিভাবে? এতো বড় পাহাড় উঠা আর নামা কী করে সম্ভব।

১১ কিলোমিটার পথ দৃঢ়তায় পাড়ি দিয়ে ঠিকই ট্র্যাকিং শেষ করে শহরে ফিরে আসে সবার মতো করে। ঘরের বধূ ঘর সামলাতে যেমন পারদর্শী; তেমনই পাহাড় জয়েও সমান পারদর্শী ছিল। ঘর থেকে যে বধূ ‘ফুরোমন’ পাহাড় জয় করেছে সে হচ্ছে রাঙামাটি শহরের রিজার্ভবাজার এলাকার সুলতানা রাজিয়া পুতুল।

পাহাড় জয় নিয়ে কথা হয় পুতুলের সাথে। তিনি বলেন, নিছক শখের বসে দেখতে যাই ট্র্যাকিং এর উদ্বোধন অনুষ্ঠান। কিন্তু সেখানে গিয়ে মনে হল সবাই যখন যাচ্ছে আমিও যাই। তবে কখনও মনে হয়নি আমি পারবো না। আমার স্বামীকে বলি আমিও উঠবো, তখন সেও ইতিবাচক সাঁড়া দেয়। প্রথমবাবের মতো ট্র্যাকিং ইতিহাসের স্বাক্ষী আমিও হতে চাই। শেষ পর্যন্ত আমি পেরেছি। সেটাই আমার অর্জন।

সাড়ে চারঘন্টা হেঁটে শেষে পুতুল ট্র্যাকিং পাহাড় থেকে নেমে আসে। এই পুতুল রাঙামাটি জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শফিউল আজমের বধূ। পুতুলের ‘ফুরোমন’ জয় নিয়ে জানতে চাইলে শফিউল আজম বলেন, পুতুল ফুরোমন উঠতে পারবে সেটা আমিও ভাবতে পারিনি। সে যখন আমাকে ফুরোমন উঠবে বলে আমিও না করিনি। সে শেষ পর্যন্ত সফলভাবে ট্র্যাকিং শেষ করে। এতে আমিও বেশ আনন্দিত।

ট্র্যাকিংয়ে সকল অংশগ্রহণকারীর সাথে স্বাভাবিক আচরণ, হাসিমুখে প্রাণবন্ত থেকে অংশ নেয় পুতুল। ঘরের বধূর ‘ফুরোমন’ জয়ের মধ্য দিয়ে সকল নারীর জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে কাজ করবে বলে মনে করছে ট্র্যাকিং সংশ্লিষ্টরা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড় চা বাগানের ভোগ দখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ায় শ্রমিক অসন্তোষ

বংশ পরস্পরায় শ্রমিকদের ভোগদখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ার হুমকির মুখে রামগড় চা বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

three × one =