বান্দরবানলিড

গাড়ীতে ব্রাশফায়ার :  কেএসমং সহ  ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আসামীরা বেশিরভাগই জনসংহতির নেতাকর্মী

বান্দরবান প্রতিনিধি
বান্দরবানে ভ্রমণকারীদের গাড়ীতে ব্রাশফায়ার ঘটনায় সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)’র কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক কেএসমং মারমা’সহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। মামলায় অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামী করা হয়েছে।
রাঙামাটি জেলার রাজস্থলী থানার গাইদ্যা ইউনিয়নের বাসিন্দার য়চিংখই মারমা বাদী হয়ে  বান্দরবান সদর থানায় বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, মামলায় পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কেএসমং মারমা’কে (৬০) প্রধান আসামি করা হয়। মামলায় অভিযুক্ত অন্য আসামীরা হলেন- রাঙামাটি জেলার রাজস্থলী উপজেলার গর্জন ত্রিপুরা (৪০),  চন্দ্রঘোনা থানার  মংনুচিং মারমা (৫০), ক্যবামং মারমা (৫০), পুসুই থোয়াই মারমা (৫০), অমর জ্যাতি চাকমা অপু (৪০), বাদো মারমা (৩৫), বাসিংমং মারমা (৩০), মংচইকে মারমা (৫৫), জাইলিমং মারমা (৩০), মংসিং থোয়াই মারমা (৩৫), সুইলং মারমা (৩৫), ছুমং মারমা (৩৫), চথুই মারমা (৩৫), ক্যকা প্রু মারমা (৩৪), সিংনুংমং মারমা (৩৭), মংহাই মারমা (৩৪), ক্যউচিং (৩৮), ক্যসুইমং বাবুল (৫০), উচিংমং (৫০), গুনধন তঞ্চঙ্গ্যা (৫০), শক্তিলাল ত্রিপুরা (৪৫) এবং খোকন তঞ্চঙ্গ্যা (৫৭)। অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামী করা হয়েছে মামলায়। অভিযুক্ত আসামীরা বান্দরবান সদর, রাজবিলা, রোয়াংছড়ি এবং রাঙামাটি জেলার রাজস্থলীসহ বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দার।
মামলার বাদী য়চিংখই মারমা বলেন, চলতি মাসের গত ১৮ সেপ্টেম্বর রুমা উপজেলা দর্শণীয় স্থানগুলো ভ্রমণ শেষে রাঙামাটি জেলার রাজস্থলীতে ফেরার পথে বান্দরবান সদরের রাঙামাটি-বান্দরবান সড়কের  কুহালং ইউনিয়নের গলাচিপায় এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা ভ্রমণকারীদের হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়ীতে ব্রাশফায়ার করে। এতে গাড়ীটি উল্টে খাদে পড়ে ৬ জন আহত হয়। এ ঘটনায় গাড়ির বিভিন্ন অংশ ভেঙ্গে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে  বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ভ্রমণকারীদের গাড়িতে ব্রাশফায়ারের ঘটনায় ২৩ জনকে আসামি করে ৪৩/৩৪১/৩২৪/৩২৬/৩০৭/৪২৭/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ অনুযায়ী বান্দরবান সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা পর আসামীদের গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে। এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button