আলোকিত পাহাড়খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়ির আশুতোষের যুক্তরাষ্ট্র যাত্রা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি
আশুতোষ নাথ। পেশায় সরকারি কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক। হয়তো বাকী জীবনটা এই চাকুরীতে কেটে যেতে পার তো। কিন্তু নিজের অদম্য ইচ্ছাশক্তি, মেধার জোরে বৃত্তি নিয়ে সহসা যুক্তরাষ্ট্র পাড়ি দেবেন মেধাবী এই যুবক। পিএইচডি করতে বোস্টনের ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছেন তিনি।

সেখানে আশুতোষ কেমিষ্ট্রিতে পিএইচডি করবেন। একই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে টিচিং এসিস্টেন্ট হিসেবে কাজ করবেন। আগামী ১২ আগষ্ট স্ত্রী গান্ধী দেবীসহ যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে তার রওনা দেয়ার কথা রয়েছে।

আশুতোষ এতদিন অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসে অফিস সহকারী কাম- কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে কর্মরত ছিলেন। এদিকে মুদ্রাক্ষরিক পদ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করতে যাওয়ার খবরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচিতি মহলে প্রশংসা ও অভিনন্দনে ভাসছেন আশুতোষ।

মেধাবী এই যুবক শিক্ষা থেকে চাকুরী জীবনে মেধা, সততা ও দক্ষতার স্বাক্ষর রেখে যাওয়ার কথা বলছেন।

খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার পান্নাবিল গ্রামের মিলন নাথের ছেলে আশুতোষ নাথা। ২০০৮ সালে মানিকছড়ি রানী নীহার দেবী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও মানিকছড়ি গিরি মৈত্রী কলেজ থেকে ২০১৪ সালে এইচএসসি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে চট্টগ্রাম হাজী মুহম্মদ মহসিন কলেজ থেকে রসায়নে বিএসসি (অনার্স) সম্পন্ন করেন।

পরবতীতে ২০১৯ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ( বুয়েট) থেকে রসায়নে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। ইতিমধ্যে আশুতোষ নাথের গবেষণা বিষয়ে তিনটি আর্টিকেল আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

এদিকে মাশরুফ হোসাইন নামে এক পুলিশ কর্মকর্তা তাকে অভিনন্দন জানিয়ে লিখেছেন, সরকারি মুদ্রাক্ষরিক পদে চাকুরী করে এমন সাফল্য অর্জন করা মোটেও সহজ কাজ নয়। তবে আশুতোষ নিজের মেধা, সততা, দক্ষতার জোরে তা অজন করেছে। নিজে পুলিশের পোশাকে থাকা অবস্থায় আশুতোষকে দেখলে সামরিক কায়দায় স্যালুট দেয়ার ইচ্ছে পোষন করেছেন তিনি।

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button