নীড় পাতা / ফিচার / অন্য আলো / ক্যাম্পাসে ফিরতে চায় বন্ধু অন্ত:প্রাণ নয়ন

ক্যাম্পাসে ফিরতে চায় বন্ধু অন্ত:প্রাণ নয়ন

ক্লাস, ক্যাম্পাস আর সহপাঠীদের মাঝে তার ছিলো সরব উপস্থিতি। যে বন্ধুটিকে একদিন ক্লাসে দেখতেন না, ওমনি তার সঙ্গে যোগাযোগ করতেন তিনি। জানতে চাইতেন ক্যাম্পাসে না আসার কারণ। নিতেন শারীরিক খোঁজ-খবরও।

ফার্সিম মান্নান মোহাম্মদী নয়ন (আকাশ)। যিনি সবার কাছে পরিচিত নয়ন নামে। চট্টগ্রামে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের এই ছাত্রের এতোসব ভালোবাসা এখন ফিকে হয়ে গেছে।

কারণ বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ হয়ে পড়লে ডাক্তারি পরীক্ষার পর জানতে পারেন, তিনি দুটি কিডনিই হারাতে বসেছেন।

নয়নের বাড়ি মেহেরপুর জেলার ক্যাশব পাড়ায়। তিনি পিতা আমজাদ হোসেন ও মাতা মাহফুজা খাতুনের একমাত্র ছেলে। অসুস্থ হওয়ার পর প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে, পরে ঢাকার কিডনি ফাউন্ডেশনে চিকিৎসা দেওয়া হয় তাকে। বর্তমানে নয়ন ভারতের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন।

নয়নের কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট করতে হবে এমনটাই জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। সেই মোতাবেক তার মা মাহফুজা খাতুনের সঙ্গে কিডনি ম্যাচিং করা হয় এবং ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। কিন্তু বর্তমানে কিডনি ম্যাচিং হওয়ার পরে চিকিৎসকরা অপারেশনের তারিখ দিলেও টাকার অভাবে অপারেশন করা সম্ভব হচ্ছে না।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার অপারেশন করাতে খরচ পড়বে ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকা।

নয়নের বাবা একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। তার পক্ষে ৩০ লাখ টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয়। তিনি চাকরি ছেড়ে ছেলেকে বাঁচাতে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। তবে তাকে সাহস জুগিয়েছেন নয়নের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বাবার একান্ত প্রচেষ্টা ও সহপাঠীরা বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে ১৫ লাখ টাকা সংগ্রহ করলেও বাকি ১৫ লাখ টাকার জন্য অপারেশন বন্ধ রয়েছে নয়নের।

নয়নের বাবা আমজাদ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ‘নয়নের দুটি কিডনি বিকল হওয়ার পরীক্ষা ধরা পড়ার পর থেকে নিজের কিছু টাকাসহ ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত সংগ্রহ করা গেছে। কিন্তু সম্পূর্ণ চিকিৎসা করাতে আরও ১৫ লাখ টাকা প্রয়োজন। এত টাকা কোথায় পাব আমরা। ছেলেকে বাঁচাতে আমি সবার সাহায্য কামনা করছি।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:

বিকাশ : ০১৯৮৭৪৭৬২৪১, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট: ১০০১৫১৫৫৬ সোনালী ব্যাংক, মেহেরপুর। নয়নের বাবার মোবাইল নম্বর : ০১৭৫৭৪০১৬২৩

আরো দেখুন

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তির দুই দশক : সম্পূর্ণ বাস্তবায়নে নানান বাধা

তিন বছর আগে ২০১৪ সালের ৯ সেপ্টেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈ সিং …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

twelve − 4 =