ব্রেকিংলিড

ক্যান্সার থেকে বাঁচতে চায় শুক্লেশ্বর চাকমা

মরণ ব্যাধি ক্যান্সার থেকে বাঁচতে চায় রাঙামাটির বরকল উপজেলার শুক্লেশ্বর চাকমা (৫১)। তিনি ২০১২ সাল থেকে এই রোগে ভুগতেছেন। বর্তমানে তিনি মরণব্যাধি এই রোগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে (চমেক) চিকিৎসারত আছেন।

শুক্লেশ্বর চাকমা রাঙামাটির বরকল উপজেলার গুইছড়ি এলাকার বাসিন্দা। পরিবারে তাঁর এক স্ত্রী, দুই ছেলে ও তিন মেয়ে রয়েছে। এরমধ্যে বড় মেয়েকে চারবছর আগে বিয়ে দেওয়া হয়। বর্তমানে শুক্লেশ্বর চাকমাসহ তাঁর পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৬ জন। এরমধ্যে বড় ছেলে আলো জ্যোতি চাকমা (১৯) চাকমা কৃষিকাজ করেন। এক মেয়ে দশম শ্রেণি আর আরেক ছেলে নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত আছেন। আরেক মেয়ে রাঙামাটি সরকারি মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। স্ত্রী আছেন গৃহস্থলী হিসেবে। অসুস্থ শুক্লেশ্বর চাকমাও ছিলেন একজন কৃষক।

তাঁর এমন রোগ ও পরিবারের ভরণপোষণ যোগাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে গোটা পরিবারকে। এরমধ্যে ডাক্তারাও জানিয়েছেন , শিঘ্রই অপারেশন করা না হলে বেশি দিন বাঁচবে না শুক্লেশ্বর।

অসুস্থ শুক্লেশ্বর চাকমার স্বজনেরা জানায়, ২০১২ সালের দিকে মুত্রথলিতে পাথর ধরা পড়ে তাঁর। পরবর্তীতে ২০১৪ সালের দিকে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে অপারেশনও করা হয়। বছরখানেক তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালোই ছিলো। কিন্তু, ২০১৬ সালের দিকে আবার পুরোনো রোগে ভুগতে শুরু করেন তিনি। দীর্ঘদিন রোগে ভোগার পর পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পর মুত্রথলীতে ক্যান্সার ধরা পড়ে শুক্লেশ্বর চাকমার। এরমধ্যে ২০১৬ সাল থেকে ২০১৮ পর্যন্ত কয়েকবার শারীরিক অসুস্থতার কারণে তাকে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি ১ মাসেরও বেশি সময় ধরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসারত আছেন (৫ম তলা, ২নং বেড, নিউরোলজি বিভাগ)।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে শুক্লেশ্বর চাকমার মেয়ের জামাতা কিরণ চাকমা বলেন, চিকিৎসকরা বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানিয়েছেন আমার শ্বশুরের মুত্রথলীতে ক্যান্সার ধরা পড়েছে। এখন অপারেশন করে যদি মুত্রথলী ফেলে দেওয়া হয়, তাহলে তিনি আরও কিছুদিন আমাদের মাছে বেঁচে থাকবেন। ডাক্তার এও বলেছেন চলতি মাসের মধ্যেই তাঁর অপারেশন করার জন্য। কিন্তু অর্থের অভাবে আমরা এখনও অপারেশন করার কোনো ধরণের প্রস্তুতি নিতে পারছি না।

কিরণ চাকমা আরও বলেছেন, আমার শ্বশুরের অপারেশন জন্য সর্বমোট সাড়ে তিন লাখ টাকার প্রয়োজন। কিন্তু অর্থের অভাবে এখনও তাঁর চিকিৎসার ব্যয়ভার গ্রহণ করার সাহস পাচ্ছি না। কোনো স-হৃদয়বান ব্যক্তি যদি এই দুর্দিনে আমাদের পাশে এগিয়ে আসেন, তাহলে আমরা একটি প্রাণকে আরও কিছুদিন বাঁচাতে পারবো।

সাহায্য পাঠানো ঠিকানা: কিরণ চাকমা, ব্যাংক একাউন্ট নং – ৭৯০০; ইসলামী ব্যাংক, বান্দরবান শাখা। ব্যক্তিগত ও বিকাশ নাম্বার- ০১৫৩৩৯২৮১৫৭।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button