করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

কৃষকের জমিতে লংগদু ছাত্রলীগের ভালোবাসার হাত

করোনা প্রাদুর্ভাবের কারনে শ্রমিক সংকট দেখা দেওয়ায় বিনা পারিশ্রমিকে রাঙামাটির লংগদুতে কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে উপজেলা ছাত্রলীগ।

শুক্রবার সকালে উপজেলা ছাত্রলীগের ২০/২৫ সদস্যদের একটি টীম আটারকছড়া ইউনিয়নের ডানে আটারকছড়া গ্রামের কৃষক আলী আকবরের ধান কেটে দেয়।

লংগদু উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আল মামুন এর নেতৃত্বে এই টীমে ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আল মাহমুদ, লংগদু মডেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম অপু, আটারকছড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. হাবিব, সাধারণ সম্পাদক মো. মুস্তুজা, আটারকছড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাঞ্চন বড়ুয়া, ছাত্রলীগ নেতা মো. তানভীর, রবিউল ইসলাম, নবী হোসেন, মো. সাকিব, মো. রবিন, হৃদয় শীল, মো. রাজ্জাকসহ উপজেলা, কলেজ ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছাত্রলীগ কর্মীরা কৃষকের ধান কেটে তার বাড়ি পৌঁছে দেয়।

কৃষক আলী আকবর জানিয়েছেন, জমিতে ধান পেকে গেছে, কিন্তু শ্রমিক না পাওয়া ধান কেটে ঘরে নিতে পারছিলাম না। বিষয়টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কয়েকজনকে বিষয়টি জানালে তারা শুক্রবার সকাল থেকে আমার প্রায় ২ একর জমির ধান কেটে দিয়েসাহায্য করেছে। আমি তাদের সকলকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই।

লংগদু মডেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম অপু বলেন, মহামারির সময়ে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সকলকে বাসায় থাকার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। এদিকে ধান পেকে যাচ্ছে অন্যদিকে শ্রমিক সংকট দেখা দেওয়ায় ধান কাটতে পারছে না কৃষক। দেশরতœ ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনা মোতাবেক কৃষকের ধান কেটে দিয়ে কৃষকের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আল মাহমুদ বলেন, করোনার কারনে উপজেলায় ধান কাটার শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। তাই উপজেলা ছাত্রলীগের টীম হত দরিদ্র ও কৃষষদের বিনা পারিশ্রমিকে ধান কেটে দিচ্ছি। তিনি আরো বলেন, যতদিন ধান কাটার মৌসুম থাকবে কৃষকদের চাহিদা অনুযায়ী আমরা আমাদের এই সেবা অব্যাহত রাখবো।

রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা লংগদু ছাত্রলীগকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, দেশের যে কোন দুর্যোগে ছাত্রলীগ সাধারণ মানুষের পাশে ছিলো, এখনো করোনা ভাইারাসের কারণে শ্রমিক সংকটে কৃষক যখন ধান কাটতে পারছে না, ঠিক তখন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও রাঙামাটির সংসদ সদস্য জননেতা দীপংকর তালুকদারের নিদের্শনায় প্রতিটি ইউনিট মাঠে রয়েছে এবং কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে। যতদিন এই মহামারি থাকবে ততদিন ছাত্রলীগ এভাবেই মানুষের পাশে,মাঠে থাকবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button