ব্রেকিংরাঙামাটি

কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইলেন আব্দুল কাদের !

বিএম শপিং কমপ্লেক্সে অনভিপ্রেত ঘটনা

পুত্রের ‘মাস্তানি’র বিচার জেলা ছাত্রলীগের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ দেয়ার পর পিতাকে তার অসদাচরণের জন্য কৈফিয়ত চেয়ে নোটিশ দিয়েছে রাঙামাটি শহরের বনরূপার প্রভাবশালী বিএম শপিং কমপ্লেক্স ব্যবসায়ি কল্যাণ সমিতি।
গত ৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় একটি দোকান নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের জেরে শহরের রমণী শাড়ীর দোকানের মালিক বিশিষ্ট ব্যবসায়ি আব্দুল কাদেরকে শো’কজ নোটিশ দিয়েছে সংগঠনটি। নির্ধারিত সময়ের আগেই নোটিশের জবাবে নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়ে ভবিষ্যতে এই ধরণের কাজ আর করবেন না বলে আশ^াস দিয়েছেন কাদের।
সভাপতি আলহাজ¦ মো: আজগর আলী এবং সাধারন সম্পাদক এস এম জাহান লিটন সাক্ষরিত নোটিশে বলা হয়েছে-‘গত ০৯/১০/২০২০ তারিখ বিকাল ৫.৩০ মিনিট হতে ৬.৪৫ মিনিট পর্যন্ত আপনার নেতৃত্বে আপনার ছেলেসহ বাইরের লোকজন এনে মার্কেট চলা অবস্থায় আপনি উচ্চভাষায় বিভিন্ন ব্যবসায়ি ও ব্যবসায়ি নেতৃবৃন্দকে মা-বাবাসহ অশালীন ভাষায় গালাগাল এবং ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন। যা রাঙামাটির ঐতিহ্যবাহি ও আধুনিক মার্কেট বিএম শপিং কমপ্লেক্স এর সুনাম ক্ষুন্ন করেছে এবং ব্যবসায়ি ও ক্রেতা সাধারণের মধ্যে আতংক সৃষ্টি করেছে। উল্লেখ্য যে, বিগত দিনেও আপনাকে এইরকম কার্যক্রমের জন্য সতর্ক করা হয়েছে। এমতাবস্থায় আপনি সমিতির গঠনতন্ত্র বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত হয়েছেন। এমতাবস্থায় এসব কার্যকলাপের জন্য আপনার বিরুদ্ধে কেনো ব্যবস্থা নেয়া হবেনা, ২৫ অক্টোবরের মধ্যে লিখিতভাবে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হলো।’
১৫ অক্টোবর ইস্যু হওয়া চিঠিটিতে ১০ দিন সময় বেঁধে দিয়ে ২৫ অক্টোবরের মধ্যে জবাব দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
তবে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত অপেক্ষা না করেই ১৯ অক্টোবর নোটিশের জবাব দিয়েছেন ব্যবসায়ি হাজী আব্দুল কাদের। সমিতির সভাপতি-সম্পাদক বরাবরে দেয়া জবাবে তিনি জানান-‘ আমার মানসিক ও শারীরিক অসুস্থতার কারণে ০৯-১০-২০২০ তারিখে আমার দ্বারা সংঘটিত ঘটনার জন্য আমি খুবই লজ্জিত, অনুতপ্ত এবং দু:খিত। আমার ব্যবহারে বা কার্যকলাপে কোন ব্যবসায়ি নেতৃবৃন্দ দু:খ বা কষ্ট পেয়ে থাকলে আমাকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। ভবিষ্যতে এই ধরণের ঘটনার আর ঘটবেনা বলে আমি আশ^াস দিচ্ছি।’
‘মোজাফফর আহমেদ এর দোকান নিয়ে আর কোন আগ্রহ নাই’ জানেিয় মি: কাদের আরো বলেন-‘আশা রাখি আমার আকুল আবেদন সমিতির নেতৃবৃন্দ সুন্দর এবং ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখে আমার কার্যকলাপের জন্য আমাকে ক্ষমা করে পূর্বের ন্যায় ব্যবসায়িক কাজে সহযোগিতা করবেন।’

আব্দুল কাদেরকে নোটিশ দেয়ার পর তার জবাবে তিনি ক্ষমা চেয়ে জবাব দিয়েছেন নিশ্চিত করে বিএম শপিং কমপ্লেক্স ব্যবসায়ি সমিতির সাধারন সম্পাদক এস এম জাহান লিটন বলেন-‘ আমরা দুই ব্যবসায়িকেই চিঠি দিয়েছি,তাদের মধ্যে কাদের সাহেবের চিঠি আমাদের হাতে এসেছে,তিনি কার কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। এখন এটা নিয়ে আমরা কমিটি বসে সিদ্ধান্ত নিব।’
তার পুত্র ফাহিম কাদেরের বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের তদন্ত টীম মার্কেট গেছে এবং ব্যবসায়িদের সাথে কথা বলেছে জানিয়েছে মি: লিটন বলেন- আমরা আশা করছি জেলা ছাত্রলীগ ফাহিম কাদেরের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক পদক্ষেপ নিবে।’

প্রসঙ্গত,গত ৯ অক্টোবর বিএম শপিং কমপ্লেক্স এর একটি দোকানের নিয়ন্ত্রন নিয়ে বিরোধ জড়িয়ে পড়েন মার্কেটের দুই ব্যবসায়ি আব্দুল কাদের ও মোজাফফর আহমেদ। মার্কেট কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টাকালে আব্দুল কাদের অশোভন ও আক্রমনাত্মক আচরণ করেন এবং তার পুত্র জেলা ছাত্রলীগ নেতা ফাহিম কাদের ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মীসহ এসে সেখানে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেন। এরপর পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। পরে ফাহিম কাদেরের বিরুদ্ধে জেলা ছাত্রলীগের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করে মার্কেট কমিটি। এরই প্রেক্ষিতে জেলা ছাত্রলীগ সাত সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করেছে। এই কমিটি আজ ২২ অক্টোবরের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়ার কথা রয়েছে।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button