করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

করোনাবন্দী জীবনে কারো চাই অন্ন,কেউ খুঁজছেন মুভি !

করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের আশংকায় সবাই এখন অনেকটা গৃহ বন্দি। দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এ কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও কারো কারো জন্য তা মরার উপর খাড়ার ঘায়ের মত। একেতো বাইরে যাওয়া বন্ধ তার উপরে ঘরে ফুরিয়ে আসছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য। খেটে খাওয়া মানুষগুলো এখন সাহায্যের আশায় দিন গুনা শুরু করছেন। অন্যের বোট চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আবুল হাশেম। তিনি জানায়, স্ত্রী সন্তান নিয়ে চার সদস্যের পরিবার তার। পর্যটক প্রবেশ নিষিদ্ধ করার পর থেকেই কাজকর্ম শুন্য দিন কাটাচ্ছেন। এর মধ্যে সঞ্চয়ে যা ছিল, তাও ফুরিয়ে এসেছে। এখন যদি কেউ সাহায্য না করে তবে পরিবারের সবাইকে না খেয়েই থাকতে হবে। একই অবস্থা দিনমজুর রাখাল, অনিল, জুয়েলের পরিবারেও।

প্রতিদিন মানুষের মালামাল উঠানামা করে যে আয় হতো তা’ই দিয়ে কোনোমতে সংসার চলত। এখন তেমন কাজ নেই, তাই অলস সময় পার করছেন তারা। খেটে খাওয়া এসব মানুষ জানায়, পারলে ভাত দিন, অন্য কিছু না। নইলে না খেয়ে মরতে হবে। রাস্তায় ফুচকা বিক্রি করা রাসেল জানায়, প্রতিদিন ফুচকা ও চটপটি বিক্রি করে যা আয় হতো, তা দিয়ে সংসারের খরচ চালাতাম। আজ বেশ কদিন বেচাবিক্রি বন্ধ। এখন সাহায্য নিয়ে বাঁচতে হবে। নিম্ন আয়ের মানুষের যখন এই অবস্থা তখন বিলাসী কিছু মানুষের বিপরীত সুর। তারা ভাত চাইনা, ভিডিও চাই। কাজকর্ম নেই তার উপরে খাওয়া আর ঘুম ছাড়া তেমন কোনো কাজ নেই এসব মানুষের। কেউ কেউতো ২/৩ মাসের বাজার করে মজুদ করেছেন।

সারাদিন রুমের ভিতরে ইউটিউবে মুভি,গান, নাটক দেখেই সময় কাটায় তারা। কেউ কেউ ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়- মোবাইলে যা মুভি ছিল সব দেখা শেষ, নতুন কিছু মুভির নাম বলুন। রাসেদ লিখেছে-সব মুভি দেখা শেষ, নতুন মুভির লিংক দিন। নীলা, সোনিয়া, মামুন ম্যাসেঞ্জারে বন্ধুকে লিখেছে, এমবি’র সমস্যা নাই। নতুন দেখব এমন কিছু মুভির নাম বলো। ধনীর দুলাল-দুলালি বা আয়েশি মানুষগুলোর টাইমলাইন জুড়ে আছে তারা নতুন নাটক, সিনেমার নাম ও লিংক চাচ্ছে। বিলাসী মানুষগুলো কেউ ফেসবুকের স্ট্যাটাসে কেউবা ম্যাসেঞ্জারে নতুন নাটক, মুভির সন্ধান করছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button