নীড় পাতা / ফিচার / খেলার মাঠ / কবে হবে রাঙামাটি ক্রিকেট লীগ ?
parbatyachattagram

কবে হবে রাঙামাটি ক্রিকেট লীগ ?

অনুশীলনকে কাজে লাগাতে পারছেনা তরুণ ক্রিকেটাররা

পুরো বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলোয়াড় থেকে শুরু করে দর্শক পর্যন্ত যেখানে বুঁদ হয়ে থাকে ক্রিকেট নিয়ে। তার মাত্রা আরো বাড়িয়ে দিয়েছিল ২০১৯ সালের ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আকর্ষণীয় সব খেলায়। অথচ বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিকেট আয়োজন নিয়ে মেতে থাকলেও রাঙামাটিতে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোনও আগ্রহই ছিল না ক্রিকেট আয়োজনের। আপাত দৃষ্টিতে দেখলে মনে হতেই পারে ক্রিকেটকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে জেলার অভিবাবক সংস্থাটি।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার ভাষ্যমতে, ২০১৬ সালের মার্চে জেলা ক্রীড়া সংস্থা সর্বশেষ প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লীগ সমাপ্ত করেছিল। সে সময় নানা জটিলতার মধ্য দিয়েই লীগটি শেষ হয়। অংশগ্রহণকারী দলের টাকা নির্ধারিত সময়ে দিতে না পারা, চ্যাম্পিয়ন- রানার্স আপ এর প্রাইজ মানি না দেয়া খেলা পরিচালনাকারী অ্যাম্পায়ারদের সম্মানি বকেয়া পরিশোধ না করা। এমন নানা অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে লীগটি শেষ করার পর থেকে আর কোন ক্রিকেট আয়োজন করতে পারেনি জেলা ক্রীড়া সংস্থা।

অন্যদিকে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে রাঙামাটি জেলা ক্রিকেট দল যতবার জেলার বাইরে খেলতে গেছে ততবারই হতাশ করে জেলার ক্রিকেটপ্রেমীদের। বিশাল ব্যবধান হার নিয়েই ফিরেছে জেলা দল। বিগত কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ শেষে নতুন কমিটি বছরখানেক হলেও ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজনে ব্যর্থ হয়েছে। যদিও দুইবার টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজনে উদ্যোগ নেয়া হলেও অজানা কারণে তাও বাতিল হয়ে যায়।

ক্রিকেটের এমন করুণ পরিণতির জন্য ক্লাব, ক্রিকেট খেলোয়াড়সহ ক্রিকেট ভক্তরা হতাশ। তারা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্তাদের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে না পারার জন্য মুলত ক্রিকেটের প্রতি কর্তাদের কম আগ্রহকেই দায়ী করছে। যেকোন ফরমেটে ক্রিকেট আয়োজন করতে না পারার কারণে অনেকটা ধংসের পথে রাঙামাটি ক্রিকেট। মাঠে বল না গড়ানোর কারণে নতুন কোন ভালো ক্রিকেটার উঠে আসছে না। তবে রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি আকবর হোসেন চৌধুরী জেলা ক্রীড়া সংস্থার ক্রিকেট উপ কমিটির আহবায়ক হওয়ায় অনেকে আশা দেখছেন নতুন করে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজনের। যদিও কার্য নির্বাহী কমিটির প্রায় বছর পার হলেও মাঠে গড়ায়নি ক্রিকেট।

রাঙামাটি জেলা ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক বেনু দত্ত বলেন, ক্রিকেট হচ্ছে না সেটি আসলে খুবই দুঃখজনক। বিগত ক্রিকেট কমিটি তারা তাদের মত করে চালিয়েছে সেখানে সফলতা ব্যর্থতার বিষয় জড়িত। তারপরও চাই ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যা কিছু করা দরকার তা করা উচিত।

কনফিডেন্স ক্রিকেট একাডেমির পরিচালক ও সাবেক জেলা দলের খেলোয়ার নাছির উদ্দিন সোহেল বলেন, বিগত কমিটি ক্রিকেট উপ পরিষদের অব্যবস্থাপনা ও নানা টানাপোড়নের কারণে ক্রিকেট বন্ধ ছিল। আশা করি নতুন কমিটি হয়েছে, এখন হয়তো নিয়মিত খেলা হবে এমনটাই প্রত্যাশা করি।

রাঙামাটি জেলা ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় মো: লিমন বলেন, আমরা খেলতে চাই, রাজনীতি বুঝি না, বুঝি খেলতে হবে মাঠে খেলা হবে সেটা। খেলার আয়োজন করবে আর আমরা খেলব।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো: শফিউল আজম বলেন, আমি ওয়াদা করছি ফুটবল অনুর্ধ্ব-১৬ ও ২য় বিভাগ ফুটবল লীগের পরেই টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট আয়োজন করবো। প্রয়োজনে আমার ব্যক্তিগত টাকা দিয়ে হলেও টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট আয়োজন করবো। এরপর পৌরসভার অর্থায়নে প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লীগ হবে। ক্রিকেট আয়োজনে আমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার ক্রিকেট উপ-কমিটির আহবায়ক রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, পৌরসভা প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লীগ এখন থেকে প্রতিবছরেই হবে এবং চেষ্টা করা অন্যান্য কোনও প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে নতুন টুর্নামেন্ট আয়োজনের। রাঙামাটি পৌরসভা থেকে তৃণমুল থেকে ভালো খেলোয়াড় তুলে আনার লক্ষ্যে পৌরসভার উদ্যোগে একটি একাডেমি চালু করবো, যেখানে সম্পূর্ণ ফ্রি’তে ফুটবল ও ক্রিকেট খেলোয়াড়রা প্রশিক্ষণ নিতে পারবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

অস্ত্রের মুখে রুমায় ৬ গ্রামবাসীকে অপহরণ 

বান্দরবানের রুমায় অস্ত্রের মুখে ৬ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা।  রোববার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে পুলিশ …

Leave a Reply