ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

‘এসপি অফিসের দরজা কখনো বন্ধ হয়নি,হবেও না’

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে রাঙামাটির নতুন পুলিশ সুপার

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে নবনিযুক্ত জেলা পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছ্ছের হোসেন জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন। মতবিনিময়কালে নবনিযুক্ত জেলা পুলিশ সুপার বলেন, ‘পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের দরজা কখনো বন্ধ হয়নি, হবেও না। আমি কখনো ক্যামরার সামনে কথা বলতে দ্বিধাবোধ করিনা। আমার যদি অন্যায় না থাকে তাহলে কেন আমি ক্যামরার সামনে কথা বলতে পারবো না? আমি যখন ডিএমপিতে ছিলাম তখনও মিডিয়াতে কথা বলতাম। আমি যে তথ্য আমার সহকর্মীদের বলতে পারবো সেটা কেন জনগণের স্বার্থে তাদেরকে জানাতে পারবো না। আমাকে সব সময় পাবেন আপনাদের পাশে। জনসাধারণের স্বার্থে যে কোন তথ্য প্রচারে আমি আপনাদেরকে সহযোগিতা করবো।’

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা পুলিশের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত পলওয়েল পার্ক মিলনায়তনে এ মত বিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছ্ছের হোসেন’র সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছুফি উল্লাহ (প্রশাসন ও অপরাধ), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তাপস রঞ্জন ঘোষ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়াটার) মাঈন উদ্দীন চৌধুরী, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সুনীল কান্তি দে, রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ফজলুল রহমান রাজনসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় পত্রিকার সম্পাদক এবং বিভিন্ন প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদিকরা।

এসময় পুলিশ সুপার বলেন, ‘আমি আরেকটু দায়িত্ব গুছিয়ে নিই, তারপর পলওয়েল পার্ক নিয়ে পরিকল্পনা করবো। এটিকে কিভাবে আরও ভ্রমণপ্রিয় মানুষের জন্য পছন্দনীয় করে তোলা যায় এবং শিশুদের জন্য বছরের বিশেষ কিছু সময়ে কিভাবে, কি ব্যবস্থা করা যায় তা নিয়েও আমি ভাববো। মাদক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মাদক সম্পর্কে কোন আপোষ থাকবে না। মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সকলে মিলে চেষ্টা করবো। তবে পার্বত্য অঞ্চলে বিশেষ কারণে স্থানীয়রা নিজেদের জন্য পাহাড়ি মদ তৈরি করে থাকে। যা তারা নিজেরা সেবন করতে পারবেন। তবে এটি ব্যবসার জন্য তৈরি করা ও বিক্রি করা অপরাধ। সেটা করতে দেয়া হবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে বছরের বেশির ভাগ সময়েই ভ্রমণ পিপাসু মানুষরা ভ্রমণ করতে আসে। সে সকল ভ্রমণকারীদের জন্য বিভিন্ন বিনোদনের মাধ্যম রয়েছে। কিন্তু মাদক দিয়ে বিনোদন দেয়ার চেষ্টা করা যাবে না। কেন আমরা তাদেরকে মাদক দিয়ে বিনোদন দেবো। তারা রূপ-বৈচিত্র্য দেখার জন্যই এখানে আসবেন এবং বিনোদন উপভোগ করবেন, কোন মাদক সেবনের জন্য নয়।’

সাংবাদিকদের সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এখানে সাংবাদিকদের প্লাটফর্ম তো অনেক, সবার সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করাটা খুবই কষ্টকর হয়ে যাবে। তারপরও আমরা আশা করছি সকলের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করতে পারবো। সাংবাদিকদেরকে একটি প্লাটফর্মে আনার চেষ্টাও করবো।’

 

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button