নীড় পাতা / ব্রেকিং / এডিসি বাংলো এখন বখাটেদের আখড়া!
parbatyachattagram

এডিসি বাংলো এখন বখাটেদের আখড়া!

রাঙামাটি শহরের তবলছড়ি পর্যটন রোডে এডিসি হিল বাংলো এখন মাদকসেবী আর বখাটেদের নিরাপদ আশ্রয়স্থলে পরিণত হয়েছে। পর্যটন রোডের এই সুন্দর বাসভবনটি এডিসির বাস ভবন হিসেবেই পরিচিত। যার নাম অনুসারে এলাকার নামকরণও করা হয় এডিসি হিল। বাসভবনে সরকারি উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা বসবাস করলেও বর্তমানে কেউ বসবাস করেন না যার ফলে অনেকটা পরিত্যক্ত হিসেবেই পড়ে আছে বাসভবনটি।

পরিত্যক্ত থাকার সুবিধা নিয়ে এডিসি হিল এলাকার স্থানীয় এবং বহিরাগত কিছু বখাটে এ ভবনটিকে ঘিরে চালাচ্ছে নানাধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ ও নিয়মিত মাদক সেবন ও বিক্রির মত কাজও। সরেজমিনে গিয়ে দেখে যায় ভবনটির বিভিন্ন কক্ষে মাদক সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জাম। বিশেষ করে সন্ধ্যা হলেই এ ভবনে মাদকসেবীদের দখলে চলে যায় এবং অনেকটা নিরাপদেই চালিয়ে যায় তাদের অসামাজিক কাজ।

মাদকসেবীদের এমন কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ এলাকার জনসাধারণ অনেকের ক্ষোভ থাকলেও মাদকসেবীদের ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে মুখও খুলতে পারছে না। অভিবাবকরা বেশ চিন্তিত তাদের সন্তানদের নিয়ে।

এ বিষয়ে রফিক স্মৃতি ক্রিকেট ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিঠু বলেন, আমরা মাদকসেবীদের এমন কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ হয়ে পৌর কাউন্সিলরকে এ বিষয়ে অভিযোগ করা হলেও পৌর কাউন্সিলর কোনও পদক্ষেপ না নিয়ে বরং যারা মাদকের সাথে জড়িত তারা পৌর কাউন্সিলের নির্বাচনে প্রতিপক্ষ ছিল বলে বিষয়টি অন্য রূপ দিবে বলে এড়িয়ে যান। তবে আমরা ক্লাবসহ এলাকার মানুষকে সাথে নিয়ে যাতে তারা অসামাজিক কাজ করতে না পারে তার জন্য ব্যবস্থা নিব।

রফিক স্মৃতি ক্রিকেট ক্লাবের আরেক কর্মকর্তা রাশেদ বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা সচেতন আছি। এ বিষয়ে কথা বলার কারণে মাদকসেবীরা এলাকার বিভিন্ন জনকে হুমকি দিচ্ছে। প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে আমরা তাদের মোকাবিলা করব।

এলাকার বাসিন্দা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি নজরুল ইসলাম বলেন, একটি ভদ্র এলাকায় এমন কর্মকান্ড কোনভাবেই মানা যায় না। প্রশাসন যাতে ভবনটিকে পরিত্যক্ত ফেলে না রেখে বসবাসের উপযোগী করে এবং মাদকসেবীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে এমনটা আহবান জানাই। এ বিষয়ে কারো কোন আইনি সহায়তার প্রয়োজন হয় তাহলে তিনি সকল ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে জানান।

মাদকসেবীদের এমন কর্মকান্ড নিয়ে পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিজানুর রহমান বাবুকে একাধিকবার ফোনে কল করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড় চা বাগানের ভোগ দখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ায় শ্রমিক অসন্তোষ

বংশ পরস্পরায় শ্রমিকদের ভোগদখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ার হুমকির মুখে রামগড় চা বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + two =