রাঙামাটি

এই তিনদিনও অটোরিক্সা চলবে না রাঙামাটি শহরে !

জানালেন জেলা প্রশাসক

লকডাউনের আগে সোম-মঙ্গল ও বুধবারের তিন দিনের সরকারি বিধিনিষেধ কালে রিকশাবিহীন শহর খ্যাত পার্বত্য শহর রাঙামাটিতে আভ্যন্তরীন চলাচলের একমাত্র বাহন অটোরিক্সা চলাচল করবে না বলে জানিয়েছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

তিনি রবিবার রাতে পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, এই ব্যাপারে সরকারি নির্দেশনা যথাযথভাবেই বাস্তবায়ন করা হবে।
জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন, জরুরী কাজে নিয়োজিত যান ছাড়া কোন যান্ত্রিক পরিবহনই চলতে পারবে না।’

সরকারি বিধিনিষেধে সারাদেশে রিকশা চলার কথা বলা হলেও দেশের একমাত্র রিকশাবিহীন শহরে অটোরিক্সা চলাচলে কোন ছাড় দেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক দৃঢ়তার সাথেই জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশনায় পৃথক কিছু নেই। সুতরাং অটোরিক্সা চলবে না রাঙামাটিতে।’

করোনাভাইরাস সংক্রমণ কঠোর লকডাউন শুরুর আগে আগামী তিন দিনের বিধি-নিষেধে কী কী খোলা থাকবে, কী কী বন্ধ থাকবে, তা জানিয়েছে সরকার।
রোববার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। এই বিধি-নিষেধের মেয়াদ শেষে ১ জুলাই থেকে কঠোর লকডাউনের ঘোষণা রয়েছে।

উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়া করোনাভাইরাসের বিস্তার নিয়ন্ত্রণে আনতে সোমবার থেকে সারাদেশে ‘কঠোর লকডাউন’ জারির ঘোষণা শুক্রবার দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শনিবার জানানো হয়, সেই লকডাউন ১ জুলাই থেকে শুরু হবে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আগের তিন দিনের বিষয়ে নির্দেশনা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ জানাল।

নির্দেশনা অনুযায়ী সোমবার থেকে পণ্যবাহী গাড়ি ও রিকশা ছাড়া সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ থাকবে।

সব শপিং মল, মার্কেট, পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার, বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা নাগাদ শুধু খাবার বিক্রি করতে পারবে।

সরকারি-বেসরকারি সব অফিস খোলা থাকবে সীমিত জনবল নিয়ে। সেই সব কর্মচারীদের অফিসের ব্যবস্থাপনায় আনতে হবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button