বান্দরবান

ইমাম হত্যার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান ॥
বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে ইমাম মো: ওমর ফারুক ত্রিপুরা’কে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে আলেম-মাওলানা’রা। পরে তারা নওমুসলিম ইমাম হত্যাকারীদের ফাঁসিসহ ৯ দফা দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চেয়ে স্মারকলিপি দিয়েছে।

বুধবার সকালে বান্দরবান প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। ঘন্টাব্যাপী কর্মসূচিতে বান্দরবান পৌরসভা এবং সদর উপজেলার বিভিন্ন মসজিদের শতশত আলেম-মাওলানাবৃন্দ অংশ নেয়। কর্মসূচিতে একত্মতা প্রকাশ করে অংশ নেয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনও। মানববন্ধনে অস্ত্রধারীদের গুলিতে শহীদ হওয়া ইমাম মো: ওমর ফারুকের রহুর মাগফেরাত এবং পরিবারবর্গদের জন্য দু’হাত তুলে মোনাজাত করে দোয়া করা হয়।

কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন বান্দরবান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আলাউদ্দিন ইমামী, বাজার জামে মসজিদের খতিব মাওলানা এহসানুল হক আল মঈন, বনরুপা মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল আওয়াল, মাওলানা আবুল কালাম, মাওলানা আহমেদ তৌহিদ, মাওলনা মুজিবুল হক প্রমুখ।

এদিকে মানববন্ধনের পর আলেম মাওলানা সমাজের একটি প্রতিনিধি দল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গিয়ে নওমুসলিম ইমাম হত্যাকারীদের ফাঁসি’সহ ৯ দফা দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চেয়ে একটি স্মারকলিপি দিয়েছে। দাবিগুলো হচ্ছে- ইমাম মো: ওমর ফারুককে গুলি করে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে ফাঁসি নিশ্চিত করা, পাহাড়ে অবস্থানরত সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গোষ্ঠীদের নির্মূল করা, শহীদ ইমাম মো: ওমর ফারুকের পরিবারের নিরাপত্তা এবং জীবিকা নির্বাহের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে, শহীদ ইমাম পরিবারকে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা, পাহাড়ি জনপদে বসবাসকারী সকল জনগণের নিরাপত্তায় প্রত্যাহারকৃত সেনাক্যাম্প গুলো পুনঃস্থাপন করতে হবে, শহীদ ইমামের প্রতিষ্ঠিত মসজিদটি সুরক্ষার ব্যবস্থা করা, হত্যাকান্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত করে তদন্ত রিপোর্ট জাতীর সামনে প্রকাশ করা এবং যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, অন্যান্য মুসলিম পরিবারগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে এবং বান্দরবান জেলার সকল ইমাম-মুয়াজ্জেন, আলেমদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

প্রসঙ্গত: গত শুক্রবার রাতে রোয়াংছড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের তুলাছড়ি আগাপাড়া এলাকায় এশারের নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা ধর্মান্তরিত হওয়া পাহাড়ের জনগোষ্ঠীর এক নওমুসলিমকে গুলি করে হত্যা করে। তার জন্মগত পূর্বের নাম পুর্ণচন্দ্র ত্রিপুরা। এ ঘটনায় রোয়াংছড়ি থানায় অজ্ঞাত পরিচয়ে ৫ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + 18 =

Back to top button