নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / খাগড়াছড়ি / ইউএনও’র বদলি আদেশে হতাশ দীঘিনালাবাসী!

ইউএনও’র বদলি আদেশে হতাশ দীঘিনালাবাসী!

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বদলির আদেশ জনমনে তীব্র ক্ষোভ দেখা গেছে। সোমবার সন্ধ্যায় এই আদেশ আসার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। ইউএনও’র বদলি আদেশ প্রত্যাহার করে পুনরায় দীঘিনালায় বহালের দাবি জানানো হয়েছে।

হাচিনসনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক ব্যক্তি ফেসবুক স্ট্যাটাসে দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শহিদুল ইসলামের বদলি আদেশ বাতিল করে পুনরায় দীঘিনালায় বহালের দাবি জানান।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি উপজেলা নিবার্হী কমকর্তা হিসেবে যোগদানের পর থেকে জনবান্ধব উদ্যোগে বদলে যায় দুর্গম দীঘিনালা উপজেলার চিত্র। প্রায় দেড় বছরে দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে পাহাড়ি বন্যা মোকাবেলায় ব্যাপক কর্মদক্ষতায় পরিচয় দেন তিনি । ইউএনও’র বৃদ্ধিমত্তায় বন্যায় আটকে পড়াদের দ্রুত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ইউএনও শেখ শহীদুল ইসলামের এমন উদ্যোগ প্রশংসার পাশাপাশি মানুষের ভালোবাসা কুড়িয়েছে।

দুর্গম পাহাড়ি উপজেলা হিসেবে দীঘিনালার চারটি বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু করেন তিনি। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জরাজীর্ণ পরিত্যাক্ত জায়গায় ‘স্বপ্নযাত্রা’ নামে নান্দনিক রেস্তোরাঁয় চালু হবার পর পুুরো উপজেলা চত্বর দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠে। দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উদ্যোগে প্রশাসনিক কাজে গতি আসে। ইউএনও’র উদ্যোগ ও সরকারের সহযোগিতায় উপজেলাজুড়ে সড়কে সৌর বিদ্যুতের বাতি স্থাপিত হয়।

উপজেলার প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত দীঘিনালা সরকারি ডিগ্রী কলেজ মোড়ে স্থাপিত হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু চত্বর’। কেবল অবকাঠামোগত উন্নয়নই নয় উপজেলার খেলাধুলার বিকাশে আন্তরিক ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন। উপজেলার ছাত্র-যুবাদের খেলাধুলায় আগ্রহী করে তুলতে নিজেই প্রতিদিন বিকেলে ফুটবল খেলায় অংশ নেয়। রাতে সকলকে নিয়ে খেলেছেন ব্যাডমিন্টন।

দীঘিনালা উপজেলা সনাতন ছাত্র যুব পরিষদের সাবেক সভাপতি জীবন চৌধুরী উজ্জ্বল জানান, ‘শেখ শহিদুল ইসলাম স্যারে নেতৃত্বে এলাকায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। ইউএনও স্যার উপজেলার সকল নাগরিকের সুখ দু:খে ছুটে গেছেন। বর্তমানে ইউএনও উপজেলায় প্রথমবারে মত গণপাঠাগার নির্মাণের উদ্যোগ নেই। ইউএনও স্যার বদলি হয়ে গেলে অনেক কাজই অসমাপ্ত থেকে যাবে। অনেক স্বপ্নই অবাস্তবায়িত রয়ে যাবে।

সোমবার সন্ধ্যায় বদলির আদেশ আসার পর থেকেই এভাবে একের পর এক মন্তব্য বা ফেসবুক স্ট্যাটাসে ইউএনও বদলির বিরুদ্ধে ফুসে ওঠে জনতা। দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শহিদুল ইসলামের বদলীর আদেশ বাতিলের দাবিতে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় ‘দীঘিনালা উপজেলা সাধারণ জনগণ’ এর ব্যানারে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করে।

দীঘিনালা সরকারি ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক মো. দুলাল হোসেন ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, ‘উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ই্উএনও) শেখ শহিদুল ইসলাম অল্প সময়ে উপজেলাবাসীর প্রিয় মানুষে পরিনত হয়েছে। আজ (সোমবার) সকালেও স্যারের সাথে নিরাপদ সড়কের দাবিতে সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করলাম আর বিকেলে স্যার বদলি! দীঘিনালার উন্নয়নে স্যারের ব্যাপক পরিকল্পনা ছিল। পরিকল্পনায় ছিলো- রাস্তার দুই পাশে ফুলের বাগান সৃজন করবে। স্বপ্নযাত্রায় লাইব্রেরি। জনসাধারণের সাথে মিলেমিশে রাস্তাঘাট পরিদর্শন। এলাকার যুব সমাজকে নিয়ে বিকেলে ফুটবল খেলা রাতে ব্যাডমিন্টন। অসংখ্য ভালো কাজের সাথে জড়িত ছিলেন মো. শেখ শহিদুল ইসলাম স্যার। অনুরোধ করি কর্তৃপক্ষকে আরও কিছু দিন ইউএনও স্যারকে স্বপদে দীঘিনালায় রাখা হোক।’

আরো দেখুন

আঞ্চলিক রাজনীতির জিঘাংসার শিকার এক বৃদ্ধা মা

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার রুপকারী ইউনিয়নে মঙ্গলাদেবী চাকমা (৫৫) নামে বৃদ্ধা এক নারীকে পিটিয়ে আহত করা …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

three × five =