রাঙামাটি

আজ চিৎমরমে ভোটঃ দুই প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

কাপ্তাই প্রতিনিধি
আজ কাপ্তাইয়ের চিৎমরম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে নেয়া কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। শনিবার সকাল হতে ৯টি কেন্দ্রে ৯ জন প্রিসাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের পাহারায় নির্বাচনি সামগ্রী কেন্দ্রে কেন্দ্রে নিয়ে গেছেন।

গত ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে এই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার কথা থাকলেও ঐ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী নেথোয়াই মারমা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় গত ১৬ অক্টোবর রাত ১১ টায় তাঁর নিজ বাড়ি চিৎমরমের আগা পাড়ায় নিহত হবার জেরে পরের দিন নির্বাচন কমিশন এই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন স্থগিত করেন। পরে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক চিৎমরম ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ওয়েশ্লিমং চৌধুরীকে দলের প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেয়।

এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের একমাত্র প্রতিপক্ষ স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী দুই দুইবারের চেয়ারম্যান খাইসাঅং মারমা। তিনি টেবিল ফ্যান প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। চিৎমরম ইউনিয়নে ভোট ভোটার ৩ হাজার ৯শত ৫৬ জন। তৎমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ হাজার ৯ শত ৮৮ জন এবং মহিলা ভোটার ১ হাজার ৯ শত ৬৮ জন। এই ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে সবচেয়ে দুর্গম কেন্দ্র হিসাবে চিহ্নিত আড়াছড়ি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এইছাড়া চিৎমরম সদর হতে অনেক দূরে আরোও ২টি কেন্দ্র রয়েছে। কেন্দ্রগুলো হলো চাকুয়া পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-১ এবং চাকুয়া পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-২। এই তিনটি কেন্দ্রে সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে ইতিমধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে আবেদন করেছেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ওয়েশ্লিমং চৌধুরী।

অভিযোগে তিনি জানান, তাঁর প্রতিপক্ষ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করে নৌকার ভোটারদের ভয়-ভীতি প্রর্দশন করছেন। তাই এই কেন্দ্রগুলোতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বৃদ্ধি করার দাবি জানান। এইসময় তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, বিগত সময়ে বর্তমান সরকার এই চিৎমরম ইউনিয়নের দুর্গম এলাকাসহ সব কয়টি ওয়ার্ডের যেই উন্নয়ন করেছেন, তারই ধারাবাহিকতায় জনগণ নৌকার প্রার্থীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন।

অপরদিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে পাল্টা অভিযোগে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী খাইসাঅং মারমা ২, ৩, ৫ ৬ কেন্দ্রগুলোতে সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে জানান, তাঁর প্রতিপক্ষ ক্ষমতাসীন দল এই কেন্দ্রগুলোতে নিজের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ভোট কারচুপি করবে। এইসময় তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, আমি দুই বার চেয়ারম্যানের দায়িত্বকালীন সময়ে এই এলাকার জনগণের সুখ-দুঃখের সাথে মিশে ছিলাম। এলাকার উন্নয়ন কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছি, তাই এবারোও জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।

চিৎমরম ইউনিয়নের নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালনকারী উপজেলা নির্বাচন অফিসার তানিয়া আক্তার জানান, বিগত ১১ নভেম্বর কাপ্তাই উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি এই ইউনিয়নেও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হবে। এই নির্বাচনী কর্মকর্তা আরোও জানান, এই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে ২ জন, ৫নং ওয়ার্ডে ২ জন এবং ৬নং ওয়ার্ডে ৩ জন সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচন করছেন। সাধারণ সদস্য পদে বাকি ওয়ার্ড গুলোতে ইতিমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছেন। এইছাড়া এই ইউনিয়নে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদের ৩টি’তেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছেন।

চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত পরিমাণ পুলিশ সদস্য নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবেন। এইছাড়া কেন্দ্রে আনসার সদস্যও মোতায়েন থাকবে। বিজিবিসহ অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টহল থাকবে। তিনি আরোও জানান, নির্বাচনের প্রচার প্রচারণার শুরু হতে মাঠ পর্যায়ে পুলিশ সদস্যরা আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী হাকিম ও ইউএনও মুনতাসির জাহান জানান, একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে প্রশাসন কঠোর অবস্থানে আছে। ইতিমধ্যে এই ইউনিয়নে ২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button