ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

আকবর-মামুনের ‘ভোট যুদ্ধ’ শুরু আজ

মামুন মাঝেরবস্তি,আকবর রিজার্ভবাজার থেকে

অরণ্য ইমতিয়াজ

মঙ্গলবার দুপুর দুইটা বাজে,ঠিক একই সময়ে,একই শহরে,ভিন্ন ভিন্ন দুই জায়গা থেকে নির্বাচনী প্রচারনার আনুষ্ঠানিক কর্মসূচী শুরু করছেন রাঙামাটি পৌরসভার আসন্ন নির্বাচনের দুই হেভিওয়েট মেয়র প্রার্থী। নৌকার আকবর রিজার্ভবাজার থেকে আর ধানের শীষের মামুন ,মাঝেরবস্তি থেকে শুরু করছেন নিজেদের নির্বাচনী প্রচারনা।

মনোনয়নপত্র বাছাই প্রক্রিয়া শেষে গেলো এক সপ্তাহান্তেও যদিও বসে ছিলেন না এই দুই প্রার্থী। নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে প্রচারনা না করলেও শেষ করে নিয়েছেন নির্বাচনী কৌশল নির্ধারন,নিজ দলের নেতাকর্মীদের সাথে আন্ত:সংযোগ, পুরো নির্বাচনের কর্মসূচীর শিডিউল তৈরি,পোস্টার-লিফলেটের খসড়া চূড়ান্ত করার কাজ। সব কাজ শেষে আজ দুপুর থেকেই শুরু হবে দুই প্রার্থীর আসল ভোটযুদ্ধ।

নির্বাচনের ভোটযুদ্ধের আগেই মনোনয়ন যুদ্ধে জয়ী বর্তমান মেয়র আকবর বেশ ফুরফুরে মেজাজেই আছেন। দলের সিনিয়র জুনিয়রদের সাথে দুরত্ব কমানো আর নির্বাচনী কৌশল নির্ধারনে নিজের চিরাচরিত ‘বুদ্ধিমত্তা’ গোপন রেখে ঘুচিয়ে নিয়েছেন আসন্ন যুদ্ধের সব সরঞ্জাম। ব্যাটলফিল্ডে পরীক্ষিত সৈনিকের মতো এক এক করে নিজের সব যুদ্ধাস্ত্রও প্রস্তুত করে নিয়েছেন যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলায়। ‘নিজস্ব প্ল্যান’ র পাশাপাশি,প্ল্যান-বি কিংবা প্ল্যান-সি,সবই প্রস্তুত তার নিজস্ব নিয়মেই। ইতোমধ্যেই সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চিংকিউ রোয়াজাকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান এবং জেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি হাজী মুছা মাতব্বরকে চীফ এজেন্ট করে তৈরি করে নিয়েছেন নিজের শক্তিশালী নির্বাচন টীমও। মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় রিজার্ভবাজারে পথসভার মধ্য দিয়ে শুরু হবে আকবরের নির্বাচনী কার্যক্রম।

বসে নেই কূশলী মামুনও। ধানের শীষের মামুন গত কয়েকদিন ধরে উপর্যুপুরি বৈঠকে দুরত্ব ঘোচানোর চেষ্টাই করেছেন নিজের দলের অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের ‘বিরুদ্ধচিন্তা’র নেতাকর্মীদের সাথে। সেই প্রচেষ্টা যে কাজে দিয়েছে,তার চিত্রও স্পষ্ট হচ্ছে ধীরলয়ে। গত কয়েকদিন ধরেই নিজের ব্যক্তিগত,ব্যবসায়িক,সামাজিক,রাজনৈতিক নানান সূত্র ও সংযোগের সাথে পুরনো সম্পর্ককে বেশ ঘষামাজা করে নিয়েছেন মামুন। ব্যবহার করেছেন নিজের শিরস্ত্রাণে থাকা সব সমরকৌশলের প্রাকচর্চাও। যোদ্ধা হিসেবে অতটা উপেক্ষা করা কঠিন মামুনকে। মামুন সেই যোদ্ধা যাকে অস্বীকার-উপেক্ষা বা অবজ্ঞা করলে,হিতে বিপরীত হতে পারে।
মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় নিজের জন্মস্থান ও শৈশব-কৈশর-তারুণ্যের স্মৃতি বিজড়িত মাঝেরবস্তি থেকেই প্রচারণা শুরু করবেন মামুন। সেখানে মুরুব্বী এবং স্থানীয়দের কাছ থেকে দোয়া ও আশীর্বাদ নেয়ার পাশাপাশি গণসংযোগ এর মাধ্যমে শুরু করবেন আনুষ্ঠানিক প্রচারনা।

রাঙামাটি পৌরসভায় এবার ভোটযুদ্ধে আরো তিন প্রার্থী আছেন। জাতীয় পার্টির প্রজেস চাকমা,বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আব্দুল মান্নান রানা এবং আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী অমর কুমার দে। তারা নিজ নিজ স্টাইলে প্রচারে নামবেন প্রথম দিন থেকেই। তবে নৌকা আর ধানের শীষের জোয়ারে তারা কতটা বিপরীত ঢেউ তুলতে পারেন,সেটা দেখার বিষয়।
আঞ্চলিক দলের কোন প্রার্থী না থানায় ভোটযুদ্ধটা আদতে সীমাবদ্ধ হয়ে গেছে নৌকা আর ধানের শীষে। এই যুগপৎ লড়াইয়ের ময়দানের চিত্র কেমন হবে,তার আঁচ হয়তো প্রথম দিনই পাওয়া যাবে,কিছুটা.. হয়তো অনেকটাই! দেখা যাক, প্রচারণা সেই মাঠ দেখে ভোটের দিনের মাঠের চিত্রের সামান্য আভাস মেলে কিনা !

 

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button