নীড় পাতা / পাহাড়ের রাজনীতি

পাহাড়ের রাজনীতি

ত্রিমুখী প্রচারনা চলছে অনলাইনে-অফলাইনেও

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে অনলাইন-অফলাইনে সমানে প্রচার-প্রচারনা শুরু করেছে প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা। এই আসনে ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করলেও মুলত লড়াই হবে ত্রিমুখী। আওয়ামীলী-বিএনপি ও জেএসএস প্রার্থীর মধ্যেই হবে মুল লড়াই। তাই জয় পেতে তিন প্রার্থী মরিয়া হয়ে নেমেছে প্রচারনায়। প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচার-প্রচারনা শুরু করে …

বিস্তারিত পড়ুন

সাবেক মেয়র হাবিবকে তুলোধুনো করলেন শাহ আলম

‘দুই মেয়াদ আগের মেয়র হাবিবুর রহমান আমাকে নিয়ে মন্তব্য করেছেন আমি নাকি কালা চাকমা, কারো ঘরের মানুষ। ভাই..আমাকে নিয়ে কিছু বলার আগে নিজের কথা ভাবুন একবার, এই রাঙামাটির মানুষ আপনাকে কি সম্মান দিয়েছে। ছিলেনতো বিদ্যুতের খাম্বার মিস্ত্রী, সেখান থেকে আপনাকে পৌরসভার মেয়র বানিয়েছে , তারপরওতো গাট্টি রেডি করে রেখেছেন, যে …

বিস্তারিত পড়ুন

দীপেন দেওয়ানের প্রতি ‘অবিচার ও অবমূল্যায়ন’ হয়েছে

দীপেন দেওয়ানের সাথে বিএনপি ‘অবিচার ও অবমূল্যায়ন’ করেছে মন্তব্য করে রাঙামাটি পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা বিএনপির সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম ভূট্টো বলেছেন, যে লোকটি দু:সময়ে বিএনপিকে ছেড়ে গেছে তার কাছেই পরাজিত হলো দু:সময়ে সরকারি চাকুরি ছেড়ে এসে দলকে গোছানো একজন ব্যক্তি,এটা দুঃখজনক।’ রাঙামাটি বিএনপির মনোনয়নে মনিস্বপন দেওয়ানকে ধানের শীষের প্রার্থী …

বিস্তারিত পড়ুন

দুর্গম ২১ কেন্দ্রে ব্যবহার হবে হেলিকপ্টার

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ২৯৯নং রাঙামাটি আসন ১০টি উপজেলা, ৫০টি ইউনিয়ন এবং ২টি পৌরসভাকে নিয়ে গঠিত। এ আসনে সংসদ নির্বাচনে ২০৩টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ কার্যক্রম চলবে। এরমধ্যে ২১টি কেন্দ্র দুর্গম হওয়ায় এতে হেলিকপ্টারে করে ভোটের সরঞ্জাম পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন রাঙামাটি নির্বাচন অফিস। ২১টি কেন্দ্র পাহাড়ের দুর্গম এলাকায় হওয়ায় এতে হেলিকপ্টারে …

বিস্তারিত পড়ুন

মনিস্বপনের আয় কমেছে,বেড়েছে সঞ্চয়

২০০১ সালে অষ্টম সংসদ নির্বাচনে বিএনপির হয়ে নির্বাচন করেন মনিস্বপন দেওয়ান। এরপরের নির্বাচনে ২০০৬ সালে নবম সংসদ নির্বাচনে তিনি এলডিপির হয়ে মনোনয়ন জমা দেন। যদিও পরবর্তীতে সেই নির্বাচনের তফসিল বাতিল করা হয়। তবে ২০০৮ নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন জমা দিলেও শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে অংশ নেননি। তবে সেই নির্বাচনের মনোনয়নপত্রে তিনি হলফনামায় …

বিস্তারিত পড়ুন

দশ বছরে বীর বাহাদুরের সম্পদ বেড়েছে ১৪ গুণ !

বৃহত্তর চট্টগ্রামের চার মন্ত্রীর মধ্যে সম্পত্তি এবং আয়ে অন্য সবাইকে ছাপিয়ে গেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং এবং তাঁর স্ত্রী। ১০ বছরের ব্যবধানে বান্দরবানের এই সাংসদের আয় বেড়েছে ৯ গুণ, সম্পত্তি বেড়েছে ১৪ গুণ। তবে এই দুই ক্ষেত্রেই তাঁকে পেছনে ফেলেছেন স্ত্রী মেহ্লা প্রুর। তাঁর সম্পত্তি …

বিস্তারিত পড়ুন

আয় বেড়েছে দীপংকরের

সাবেক পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারের সব ক্ষেত্রেই আয় বেড়েছে। দশম সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় তাঁর ব্যবসা থেকে বাৎসরিক আয় ৪৪ লাখ টাকা দেখানো হয়েছিলো, কিন্তু বর্তমানে সেই আয় বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ ৮৪ লক্ষ টাকা হয়েছে। এছাড়া গতবার মোটরগাড়ি না থাকলেও এবার মোটরগাড়ির দাম ৬৩ লক্ষ ৪৮ হাজার ১৪৮ টাকা দেওয়া …

বিস্তারিত পড়ুন

চুক্তিতে স্থবির অর্থনীতিতে দেখা দিয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য

১৯৯৭ সালে চুক্তি স্বাক্ষরের পূর্বে হানাহানিতে তেমন কোনও প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেনি রাঙামাটিতে। কিন্তু চুক্তি পরবর্তী সময়ে শান্তি বাহিনীর স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার পর পাহাড়ের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে। সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নানান উদ্যোগের মাধ্যমে সৃষ্টি হয় কর্মসংস্থান। পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও নিরাপত্তা শঙ্কা দূর হওয়ায় অর্থনৈতিক কর্মকান্ডেও গতি আসে। …

বিস্তারিত পড়ুন

চুক্তিতে কী আছে জানে না সাধারণ মানুষ!

আজ ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির ২১তম বর্ষপূর্তি। ১৯৯৭ সালের এদিনে সরকারের কাছে সন্তু লারমা’র নেতৃত্বে অস্ত্র সমর্পনের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে শান্তি বাহিনী। চুক্তির ৭২টি ধারার মধ্যে বাস্তবায়ন নিয়ে ইতোমধ্যে আওয়ামীলীগ ও জনসংহতি সমিতি মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। তবে যাদের জন্য এই চুক্তি, সেই সাধারণ মানুষের এ বিষয়ে …

বিস্তারিত পড়ুন

উন্নয়নের গতি বাড়লেও সংঘাত থামেনি পাহাড়ে

আজ ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২১তম বর্ষপূর্তি। যা সারা দেশে ‘শান্তি চুক্তি’ নামে সমাদৃত। ১৯৯৭ সালে এদিন বাংলাদেশ সরকারের সাথে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির চুক্তি সম্পাদিত হয়। চুক্তির পর দীর্ঘদিনের অবরুদ্ধ পার্বত্যাঞ্চল বিশ্ববাসীর কাছে মুক্ত হয়। শান্তির বার্তা নিয়ে এই চুক্তি বাস্তবায়ন করা হয়। প্রাথমিকভাবে শান্তিবাহিনীর সদস্যরা অস্ত্র জমা …

বিস্তারিত পড়ুন