বিশ্ব নাট্য দিবসে রাঙামাটিতে নাটক মঞ্চায়ন

‘স্বাধীনতার স্মৃতিকাতর এক নাট্য সন্ধ্যা’


সাইফুল বিন হাসান প্রকাশের সময়: মার্চ 28, 2018

‘স্বাধীনতার স্মৃতিকাতর এক নাট্য সন্ধ্যা’

১৯৭১ সালে একটি কবিতা শুনার জন্যে বহু মানুষের অপেক্ষা, রেডিও চ্যানেল ঘোরাতে ঘোরাতে প্রিয় নেতার কন্ঠ খুঁজে বেড়ানো। হঠাৎ রেডিওতে শুনা যায় সে নেতার কন্ঠে কবিতার সেই কাংখিত বাণী ‘এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। সবাই যেনো এ কথাটার অপেক্ষায় ছিলো দীর্ঘ সময় ধরে। নেতার সাথে ‘জয় বাংলা’ শ্লোগানে তাদের তৃষ্ণাত্ব হৃদয় যেনো জল খুঁজে পেলো।
কৃষক, ছাত্র, শিক্ষক থেকে শুরু করে সবাই বেরিয়ে পরলো যুদ্ধক্ষেত্রে। এ তো স্বাধীনতার যুদ্ধ, একটি জাতির মুক্তির জন্যে সংগ্রাম। শত শহিদের রক্তের বিনিময়ে, শত মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে, শত লাঞ্চনা, নির্যাতন ভোগ করে অর্জিত এই স্বাধীনতা।
বহু আকাংখা ছিলো প্রিয় মানুষটি যুদ্ধ শেষ করে বাড়ি ফিরবে, মা অপেক্ষায় ছিলো খোকা বাড়ি ফিরবে লাল-সবুজের পতাকা হাতে নিয়ে।
লাল-সবুজের পতাকা মুক্ত আকাশে উড়েছে ঠিকই কিন্তু খোকা ফিরলো না মায়ের কাছে, প্রিয় মানুষটি ফিরলো না তার জন্যে অপেক্ষা করে থাকা অন্য প্রিয় মানুষটি কাছে। তবুও দেশ স্বাধীন হয়েছে, মুক্ত হয়েছে দেশের মাটি ও আকাশ।
এমনই স্মৃতিকাতর দৃর্শই মঞ্চায়ন করা হয়েছে বিশ্ব নাট্য দিবস উপলক্ষে রাঙামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাঙামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে “আমরা তোমাদের ভুলব না” স্বাধীনতা সংগ্রামের এ নাটক মঞ্চায়ন করা হয়। এতে জেলা শিল্পকলার নাট্য শিল্পিরা অংশগ্রহণ করেন।
নাটক শেষে উপস্থিত অতিথিদের মাঝে বক্তব্য রাখেন প্রবীণ সাংবাদিক রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সুনিল কান্তি দে, উদিচি সভাপতি অমলেন্দু হাওলাদার, জেলা শিল্পকলার সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল হক বুলবুল, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব আরফান আলী ও সুজিত কুমার দাশ। এতে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা শিল্পকলার অফিসার অনুচিনথিয়া চাকমা। নাটকটির লেখক ও পরিচালনায় ছিলেন জেলা শিল্পকলার নাটক প্রশিক্ষক, বাংলাদের বেতার রাঙামাটির নাটক পরিচালক নাট্য শিল্পি সোহেল রানা।
নাটক মঞ্চায়ন ও আলোচনা সভার শেষে নাটক বিষয়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজিত নাটক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Top advertise


এই সংবাদটিতে আপনার মতামত প্রকাশ করুন

avatar
  Subscribe  
Notify of