ছাত্রলীগের বর্ষপূর্তিতে কাউখালীতে দীপংকর তালুকদার

‘মাদক ব্যবসার সাথে যুক্ত কেউ ছাত্রলীগ হতে পারে না’


সাইফুল বিন হাসান প্রকাশের সময়: জানুয়ারী 13, 2018

‘মাদক ব্যবসার সাথে যুক্ত কেউ ছাত্রলীগ হতে পারে না’

সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেছেন, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও মাদক ব্যবসার সাথে যারা যুক্ত তারা ছাত্রলীগ কর্মী হতে পারে না। ছাত্রলীগ করার আগে এর আদর্শ সম্পর্কে সকলের ধারণা নিয়ে আসতে হবে। আমরা আদর্শবান কর্মী চাই, গণহারে কর্মী চাই না বলেও মন্তব্য করেন জেলা আওয়ামী লীগের এই শীর্ষ নেতা। বুধবার বিকালে বেতবুনিয়া হাসপাতাল চত্বরে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙামাটি কাউখালী উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ছাত্র সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্তু লারমার সাথে বৈঠক করেছে, সেখানে তারা দুই জনেই নানান বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। নিশ্চয় সে স্থানেও শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিকল্পনা নিয়ে তাদের দুই জনের মধ্যে আলাপ আলোচনা হয়েছে। সেখানে তো আওয়ামী লীগ কিংবা মন্ত্রিপরিষদের তেমন কেউ ছিলো না। সুতরাং তারা কি কথা বলেছে এ বিষয়ে কেউ অবগত নয়। এই সুযোগ নিয়ে সন্তু লারমা প্রধানমন্ত্রীর নামে গীবত করছে’ বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার।

কাউখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আতুমং মারমার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বাবু চৌধুরীর সঞ্চালনায় ছাত্র সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, কাউখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অংসুইপ্রু চৌধুরী, সহ-সভাপতি এসএম চৌধুরী, ক্যজাই মারমা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামশুদোহা চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ক্যচিংমং মারমা, কাউখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সালাহ উদ্দিন হামিদ মঞ্জুসহ সংগঠনের সাবেক ও বর্তমান বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের সাম্প্রদায়িক-সম্পীতি নষ্ট করার জন্যে একটি মহল ষড়যন্ত্র করছে, এই মহল কে প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে এবং তাদের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদেরকে সজাগ থাকার আহবান জানান তিনি।

আদর্শ ছাত্রনেতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অন্য দলের কর্মীরা মিছিলের মধ্যে নিজের নেত্রীর গদিতে আগুন জ¦ালানোর স্লোগান করে। কিন্তু আমরা কোন সময় নিজ নেত্রীর বিরুদ্ধে এমন কথা বলার দুঃসাহসও করি না। কারণ নেত্রীকে আমরা অনেক বেশি ভালোবাসি। রক্তের গ্রুপের যদিও এক একটি বৈজ্ঞানিক নাম আছে কিন্তু আমরা বিশ^াস করি আমাদের রক্তের গ্রুপের নাম আওয়ামী লীগ।

আলোচনা সভা শেষ ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে কেট কাটা ও পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Top advertise


এই সংবাদটিতে আপনার মতামত প্রকাশ করুন

avatar
  Subscribe  
newest oldest most voted
Notify of
কাপ্তাই এসএমফরিদ
Guest

দাদা বক্তৃব্য কে অভিনন্দন জানাই,, আমার প্রশ্ন মাদক সেবনকারী ছাএলীগ হতে পারেনা ,, তাহলে মাদকসেবীকে সংগঠনে পদ দিয়ে নেতা বানাই কারা? এবং তাদের ধাপটে প্রসাশন সহ সাধারন জনগন অস্থির, তাদের কারা কারা লালন পালন করে থাকেন?