নীড় পাতা / পাহাড়ের রাজনীতি / ঢাকায় পিসিপি’র সম্মেলনে নতুন নেতা

ঢাকায় পিসিপি’র সম্মেলনে নতুন নেতা

‘আত্মকেন্দ্রীকতা, দোদুল্যমানতানয়, অস্তিত্ব রক্ষার শপথে আত্মবলিদানের মন্ত্রই হোক জুম্ম ছাত্র সমাজের চেতনা’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুনীর চৌধুরী মিলনায়তনে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা, মিরপুর শাখা ও বাসাবো শাখার “বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল”অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক অরুণ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যার সঞ্চালনায় এবং সভাপতি অমর শান্তি চাকমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার বিভাগের সদস্য ও বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের তথ্য ও প্রচার সম্পাদক দীপায়ন খীসা। বিশেষ অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জুয়েল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মনিরা ত্রিপুরা, বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক পলাশ মাহাতো এবং বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক রাজীব দাশ। এছাড়াও সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাগাছাসসহ বিভিন্ন প্রগতিশীল রাজনৈতিক ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা বলেন, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ মানেই আন্দোলনের মূর্ত প্রতীক, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ মানেই এম এন লারমার আদর্শে দীক্ষিত এক ঝাঁক তরুণ রাজনৈতিক কর্মী, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ মানেই ১৩ ভাষাভাষী চৌদ্দটি জাতির মুক্তির আলোর দিশারী। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই এই পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ জুম্ম জনগণের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই সংগ্রাম করে যাচ্ছে এবং যতদিন পর্যন্ত অধিকার আদায় না হয় ততদিন পর্যন্ত পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ সঠিক আদর্শে দীক্ষিত হয়ে ঐক্যবদ্ধ লড়াই সংগ্রাম করে যাবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি কিংশুক চাকমা এবং সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন সাংগঠনিক সম্পাদক রিবেং দেওয়ান। মিরপুর শাখার সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন মিরপুর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রিপ রিপ চাকমা এবং বাসাবো শাখার সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন বাসাবো শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক উমংহ্লা মারমা।

উক্ত সম্মেলনে অমর শান্তি চাকমাকে সভাপতি, অরুণ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যাকে সাধারণ সম্পাদক এবং কৌশিক তঞ্চঙ্গ্যাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় শাখার ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। তুর্বান রায়কে সভাপতি, অনেশ চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক, নরেশ চাকমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট মিরপুর শাখা কমিটি; রুমেল তঞ্চঙ্গ্যাকে সভাপতি, উমংহøা মারমাকে সাধারণ সম্পাদক, জনি ত্রিপুরাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট বাসাবো কমিটি এবং জ্যাকশন তঞ্চঙ্গ্যাকে আহ্বায়ক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট ঢাকা পলিটেকনিক্যাল শাখার আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।(বিজ্ঞপ্তি)

আরো দেখুন

উন্নয়নের গতি বাড়লেও সংঘাত থামেনি পাহাড়ে

আজ ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২১তম বর্ষপূর্তি। যা সারা দেশে ‘শান্তি চুক্তি’ নামে সমাদৃত। …

One comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

seventeen − 4 =