আওয়ামী যুব মহিলা লীগের সম্মেলনে দীপংকর তালুকদার

‘এমপি ঊষাতনের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ প্রমাণসহ প্রকাশ করা হবে’


সাইফুল বিন হাসান প্রকাশের সময়: এপ্রিল 9, 2018

‘এমপি ঊষাতনের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ প্রমাণসহ প্রকাশ করা হবে’

‘আঞ্চলিক দল ক্ষমতায় আসার আগে পাহাড়ের মানুষকে নানান স্বপ্ন দেখিয়েছে, তারা নানান প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলো। কিন্তু এখন কি দেখা যাচ্ছে? তারা তাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেনি। শুধু মাত্র একটা হয়েছে, তা হলো চাঁদাবাজি বৃদ্ধি পেয়েছে। এমপি ঊষাতন তালুকদারের বিরুদ্ধেও সাধারণ মানুষের নানান অভিযোগ রয়েছে। সে অভিযোগ গুলো আমরা প্রমাণসহ কাগজ পত্র পেলে তা ছাপিয়ে দিয়ে এ অভিযোগ গুলোর কথা সাধারণ মানুষকে জানাবো’ বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।

রবিবার সকালে রাঙামাটি জেলা যুব মহিলা লীগের আয়োজনে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে বিপরিত ¯্রােত প্রবাহিত। জাতীয় রাজনীতি এখানে যেনো প্রবেশ করতে না পারে, সে জন্যে আঞ্চলিক কিছু দল বাঁধা দেয়। আঞ্চলিক দলগুলো ঈর্ষাকাতর হয়ে পড়েছে। কারণ আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় এলে তাদের ভাত শেষ হয়ে যাবে। তাহলে কি করতে হবে ? আওয়ামী লীগকে ঠেকাতে হবে। এই আওয়ামী লীগকে ঠেকানো জন্যে তারা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে হত্যা, বেদম প্রহর করছে। এছাড়া জোর করে দল থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করছে বন্দুকের নলের মুখে’ বলেও মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

এতে তিনি আরো বলেন, কৃষকলীগের জুরাইছড়ি কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়েছে, পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। কিন্তু স্থানীয় পত্রিকায় দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন পদের নাম দিয়ে অনেকে দল থেকে পদত্যাগ করছে। আর যদিও কেউ দল থেকে পদত্যাগ করতে চায় তবে তা বিবেচনা করার মালিক আমরা, তারা নয়।

সম্মেলনে দীপংকর তালুকদার আরো বলেন, বন্দুকের নলের মুখে যারা গতবার ভোট নিয়েছিলো তারা জানে, এবার আর সম্ভব হবে না। তাই তারা এবার ভাবছে ১৪ দল থেকে সমর্থন নিবে। ১৪ দলের যে জোট এটার অন্য কোন সংগঠনের অস্থিত্ব রাঙামাটিতে নেই, শুধু মাত্র একটির অস্থিত্ব রয়েছে তা হলো আওয়ামী লীগ। যে আওয়ামী লীগের এতদিন সমালোচনা করেছে, এখন তাদের সমর্থনে ভোটে জিততে চায় তারা। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কি বোকা? প্রধানমন্ত্রী সবকিছুর খবর রাখে।

সম্মেলনে দীপংকর তালুকদার আরো বলেন, শান্তি চুক্তি হওয়ার সময় বিএনপি বলেছিলো সন্তু লারমার হাত বাঙালীর রক্ষে রঞ্জিত আর তার সাথে শেখ হাসিনা হাত মিলিয়েছে। তখন তারা তাদের বিরুদ্ধে বলেছে, এমনকি সন্তু লারমার বিএনপির বিরুদ্ধে নানান কথা বলেছে। কিন্তু আজ আমরা কি দেখতে পাই বিএনপির ডাকে হরতালে পিকেটিং করে জেএসএস-পিসিপি নেতাকর্মীরা। এছাড়া আমরা যখন অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে আন্দোলন করছি তখন বিএনপি ঘরে বসে রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Top advertise


এই সংবাদটিতে আপনার মতামত প্রকাশ করুন

avatar
  Subscribe  
newest oldest most voted
Notify of
Gourab Chakma
Guest

Dalal Dipankar er biruddheo evidence prokash kra hbe…???

HoRish ChanDro KarBari
Guest

গত নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় অন্তর্জালা বয়ে বেড়াই তারই বহি:প্রকাশ!

Deba Chakma
Guest

নিজের ক্ষমতা না থাকলেও যে ভাবে ফলক তোমার নামে হয়েছে সেই সন্ত্রাসের কথা কে বলবে?উষাতন বাবু জুম্ম জমগনের সুখ দুঃখের কথা সংসদে উত্তাপন করেছেন আর দিপংকর কি কোন দিন বলেছে?

মিদে মো
Guest

গরুচুদা দালাল

Smaranika Chakma Chaitra
Guest

বন ভান্ন্তে একটা কথা বলেছেন। জ্ঞান না থাকলে কোন কিছু হয় না।জ্ঞান উদয় হোক সকলে।

Changma Hill Chadigang
Guest
আরে জনাব মোঃ দীপংকর তালুকদার ওইতো জুম্ম না আদিবাসি ও না ওই তো বাঙালিবাসি ওই যদি সত্যিকারে জুম্ম হতো যে তিনি এতবার নির্বাচিত হয়েছিলেন একবারো কি বলেছিলো যে আদিবাসিদের সুখ দুঃখের কথা বলেনি।আর আমাদের আদিবাসিদের পাশে তাকেননি বরং বিপক্ষে রয়েছে আর সব সময় বাঙালিদের পাশে রয়েছেন। গত নির্বাচনে প্রচারনার সময় লংগুদুতে গিয়ে বাঙালিদের সামনে কি বলেছিলো আপনাদের মনে আছেনি তকন বলেছুলো তোমরা যদি ঊষাতনকে ভোট দেন তাহলে এই পার্বত্য জেলায় তাকতে পারবেননা এই কতা বলেছিলো বাঙালিদের সামনে।আর সেইদিন বাঙালিদেরকে গরু জবাই করে বর একতা পার্তি করেছিলেন। ওর কাছে বাঙালিরা আপন আর আমাদের জু্ম্মরা হলাম পর।তাই আমি বলে দিচ্ছি হাজার ভাল… Read more »
Subrata Jummo
Guest

এ মগদামু হমলে মুরিবু হিজিনি। মুরিলে অক্কে শুগের হাবি ভাত হেমবে

Mitchell Starc
Guest

প্রলাব বুগার অার জায়গা পায়না

Sona Chakma
Guest

যাত্তে মালা শুগর… জাতির কুলাংগার….

অন‍ন‍্যা চাকমা
Guest

hia