নীড় পাতা / ব্রেকিং / ইউপি সদস্য কৃষ্ণা চাকমার বেঁচে থাকার যুদ্ধ

ইউপি সদস্য কৃষ্ণা চাকমার বেঁচে থাকার যুদ্ধ

রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলার এরাইছড়ি মৌজার সহজ-সরল এক নারী কৃষ্ণা চাকমা (৪৫)। এলাকায় দেশ ও দশের সেবা করার স্বপ্ন নিয়ে ইউপি নির্বাচনে বনযোগীছড়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ডে সদস্য নির্বাচিত হন। উপজেলায় উন্নয়নের ধারা এগিয়ে নিতে ও পিছিয়ে পরা নারীদের উন্নয়নে কাজ করার প্রত্যয়ে উপজেলা সংরক্ষিত আসনে নির্বাচন করে জয় লাভ করেন তিনি। তার সেই স্বপ্ন আজ ধু-ধু বালুচরে ডুবে যাচ্ছে। দুরারোগ্য জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে আর্থিক দৈনতায় চিকিৎসার অভাবে ঘরের এক কোণে যন্ত্রনায় চটফট করে মৃত্যুর দিন গুনছে এখন এই নারী।
বেদনাহত কন্ঠে বলেন,‘ আমি এত তাড়াতাড়ি চলে যেতে চাইনা। দেশ ও দশের সেবা করতে চাই । আমাকে বাঁচাও, আমাকে চিকিৎসা দিলে বেঁচে যাবো, আমাকে সাহায্য করো।’ ব্যাকুল কন্ঠে বাঁচার জন্য সহযোগিতা অনুরোধ আর আকুতি তার সবার কাছে।

পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে তার শরীরে উপসর্গ দেখা দেয়। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে তার সুচিকিৎসার জন্য প্রথমে রাঙামাটি- চট্টগ্রাম পরে সিরাজগঞ্জ ক্যান্সার নিরাময় হাসপাতালে নেয়া হয়। এখানেই ধরা পরে জরায়ু ক্যান্সার। সেইসময় থেকে প্রতিমাসে ২৫ হাজার টাকা খরচে চিকিৎসা নেওয়া হয়। গত নভেম্বর মাসে অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ হয়ে যায় তার। মাসখানিক ভাল থাকলেও জুন মাসে অসুস্থতার তীব্রতা বেশি দেখা দেয়। যখনই যন্ত্রনা শুরু হয় চটফট করতে করতে মাটিতে লুটিয়ে পরে।

কৃঞ্চা চাকমার স্বামী অনুপম চাকমা(৫০) জানান, রোগ চিহ্নিত হওয়ার পর থেকে চিকিৎসার খরচ জোগাতে নিজের ভিটেমাটি বিক্রি করে দিয়েছি। এখন আর আমার খরচ জোগানোর কোন পথ নেই-কি করবো বুঝে উঠতে পারছিনা !

তার একমাত্র ছোট ছেলে নিয়ন চাকমা ( ১৮) কান্না জনিত কন্ঠে মায়ের সুচিকিৎসার জন্য সর্বস্তরের সহযোগিতা চেয়েছেন।

এদিকে স্থানীয় সাংবাদিক সুমন্ত চাকমার নেতৃত্বে ১১ তরুন জুরাছড়ি দরিদ্র রোগী কল্যান তহবিল নামে তার চিকিৎসার অর্থ তৃণমূল পর্যায় ও বিভিন্ন দপ্তরে আর্থিক সহায়তার আবেদন জানাচ্ছেন।

এই তরুণদের মধ্যে জ্ঞান মিত্র, রকি, শংকর চাকমা জানান, আমাদের তহবিলের লক্ষ্য দরিদ্র রোগীদের পূর্ণ চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা। প্রথম পর্যায় বনযোগীছড়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য ও উপজেলা পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য কৃষ্ণা চাকমার চিকিৎসার তহবিল সংগ্রহ করছি। আমাদের বিশ্বাস মানব সেবায় বৃত্তবানরা এগিয়ে আসবেন।

জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডাঃ মোঃ হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন (ক্যান্সার ইপিডেমিওলজি বিভাগ) জানান, নারীর ঘাতক হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস (এইচপিভি) জরায়ু মুখে ক্যান্সারের অন্যতম কারণ। এতে জরায়ুর মধ্যে তীব্র যন্ত্রণা হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে এর কোনো লক্ষণ নেই। নির্দিষ্ট চিকিৎসা ও পরীক্ষায়র মাধ্যমে তা সনাক্ত করা হয়।’

তিনি আরো জানান, এ রোগের চিকিৎসা দেশে হচ্ছে। প্রাথমিক ভাবে রোগ নির্ণয় করা গেলে অপারেশনের মাধ্যমে জরাযু কেটে বাদ দেওয়া যেতে পারে। এছাড়া কেমোথেরাপি এবং রেডিও থেরাপি দিয়ে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

বনযোগীছড়া ইউপি চেয়ারম্যান সন্তোষ বিকাশ চাকমা জানান, ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়ন খাতে তেমন একটা আয় নেই-ফলে ইউনিয়ন পরিষদ ফান্ড থেকে তেমন একটা সহযোগিতা করা যাচ্ছেনা। তবে সকল ইউপি সদস্যগণ সম্মিলিত ভাবে আর্থিক সহায়তা করা হচ্ছে। আমরা সবাই চাই,কৃঞ্চা চাকমা সুস্থ হয়ে উঠুক।

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধু ফুটবলে রাঙামাটির চ্যাম্পিয়ন লংগদু

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

6 − one =